মাটিরাঙ্গায় করোনা প্রতিরোধে চৌদ্দ তরুনের লড়াই

fec-image

বিশ্বব্যাপী মহামারিতে পরিণত করোনাভাইরাস সংক্রমণ দেখা দিয়েছে বাংলাদেশেও। প্রায় প্রতিদিন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। মহামারী করোনা ভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে সরকারের যেন প্রচেষ্টার কোন কমতি নেই। করোনাভাইরাস সংক্রমনের শুরু থেকেই মাটিরাঙ্গাকে করোনামুক্ত রাখতে ক্লান্তিহীনভাবে কাজ করে যাচ্ছে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি নিজেদের উদ্যোগে করোনা যুদ্ধে নেমেছে মাটিরাঙ্গার এক ঝাঁক তরুন। করোনা সংক্রমনের শুরু থেকেই জনসচেতনতা সৃষ্টিসহ করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে মাঠে নামে এসব তরুনরা। তাদের কার্যক্রম এগিয়ে নিতে গড়ে তোলে ‘করোনা যোদ্ধা বাংলাদেশ’ নামে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের। এ যেন মাটিরাঙ্গায় করোনা প্রতিরোধে চৌদ্দ তরুনের লড়াই।

শুধুমাত্র জনসচেতনতাই নয়, সাধারণ মানুষকে সুরক্ষা দিতে মসজিদ-মন্দির ও বিভিন্ন যানবাহনে জীবানু নাশক স্প্রে ছিটানো, করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে সামজিক দুরত্ব নিশ্চিত ও দুর্গম জনপদে হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতসহ সেবামুলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে ‘করোনা যোদ্ধা বাংলাদেশ’ নামে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা। ২শ ৫০ পরিবারের মাঝে ঈদে উপহার সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে সংগঠনটির সদস্যরা।

নিজেদের জীবনের নিরাপত্তার কথা না ভেবে ‘চলো করোনা প্রতিরোধে এগিয়ে যাই’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রতিদিন সেবামুলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন ১৪ তরুন। জনসচেতনতা সৃষ্টিতে বিভিন্ন হাট-বাজারে মাইকিং ও করেন তারা। এছাড়াও বিভিন্ন জনপদে নিজেদের টাকায় সবজি ক্রয় করে বিতরণ করেছে করোনার প্রভাবে কর্মহীন মানুষের মাঝে। মাটিরাঙ্গার পাহাড়ের বাঁকে বাঁকে এবং অতি দুর্গম স্থানে চলছে তাদের এ কার্যক্রম।

করোনা যুদ্ধে নিজেদেরকে উৎস্বর্গ করার কথা জানিয়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটির প্রধান সমন্বয়কী মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, আমরা ৭১’র যুদ্ধ দেখিনি। করোনা যুদ্ধকে মোকাবিলা করে ৭১’র মতো জয়ী হয়ে ঘরে ফিরবো। জাতির এ দুর্দিনে এমন একটা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনে কাজ করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছি।

মাটিরাঙ্গায় ‘করোনা যোদ্ধা বাংলাদেশের’ তত্বাবধায়ক ও গোমতি বিকে উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, করোনা ভাইরাস দেশে ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। একটি অদৃশ্য শত্রুর সঙ্গে আমরা যুদ্ধ শুরু করছি। স্বপ্রণোদিত হয়েই আমরা অদৃশ্য শক্তির বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছি। দেশের মানুষদেরকে বাঁচাতে আমাদের এ লড়াই চলবে। সকলকে আরও বেশি সচেতন হতে হবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, মূলত সচেতনাই রুখতে পারে করোনাভাইরাস।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: করোনা, মাটিরাঙ্গায়
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 4 =

আরও পড়ুন