মাটিরাঙ্গায় জাতীয় শোক দিবস; শোককে শক্তিতে পরিণত করার আহবান

fec-image

শোককে শক্তিতে পরিণত করার আহবান জানানোর মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকালের দিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে এক শোক র‍্যালি মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চত্বরের ফ্রিডম স্কোয়ার থেকে শুরু হয়ে গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ মাঠে এসে শেষ হয়।

শোক র‍্যালি শেষে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মাটিরাঙ্গা উজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার শেখ মো: আশরাফ উদ্দিন’র সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ খোরশেদ আলম, মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো.সামসুদ্দিন ভুইয়া, মাটিরাঙ্গা সরকারি ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রশান্ত কুমার ত্রিপুরা, মাটিরাঙ্গা পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. আবুল হাসেম, ভাইস চেয়ারম্যান মো. আনিসুজ্জামান ডালিম ও মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিরনজয় ত্রিপুরা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাটিরাঙ্গা উজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর ররহমানের জীবনাদর্শ থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে শোককে শক্তিতে পরিনত করার আহবান জানিয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের এক জলন্ত ইতিহাস। কিছু বিপদগামী লোক তাদের অসৎ উদ্দ্যশ্যকে চরিতার্থ করার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করলেও স্বাধীন বাংলাদেশের মানচিত্র থেকে তাকে মুছে ফেলতে পারেনি। বরং তিনি স্বমহিমায় সমুজ্জল। তাঁর আদর্শকে বুকে লালন করে একটি স্বনির্ভরশীল, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ার আহবান জানান তিনি।

পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুষ্ঠিত চিত্রাঙ্কন, রচনা ও বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

এদিকে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় বাদ জোহর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র আত্মার শান্তি ও দেশের অগ্রগতি কামনা করে মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদসহ বিভিন্ন মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজনসহ বিভিন্ন এতিমখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মীর মো. মোহতাছিম বিল্লাহ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো.মনিরুজ্জামান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজ কুমার শীল, মাটিরাঙ্গা ইসলামিয়া আলিম মাদরাসার অধ্যক্ষ কাজী মো. সলিম উল্যাহ, মাটিরাঙ্গা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হাশেমসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধি প্রমুখ অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে প্রশাসনের বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চত্বরে ‘ফ্রিডম স্কোয়ারে’ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন মাটিরাঙ্গা উজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহি অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ। এর পরপরই মাটিরাঙ্গা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ককমান্ড, মাটিরাঙ্গা সার্কেল পুলিশ, মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আ’লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: জাতির জনক, জাতীয় শোক দিবস, বঙ্গবন্ধু
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nine + eleven =

আরও পড়ুন