মাটিরাঙ্গায় ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা শ্রীঘরে

ra-pe.thumbnail

পার্বত্যনিউজ রিপোর্ট :

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় নারী নির্যাতনের অভিযোগে এক ছাত্রলীগ নেতা এখন শ্রীঘরে। নারী নির্যাতনের অভিযোগে আটক ছাত্রলীগ নেতাকে আজ সকালে খাগড়াছড়ি আদালতে পাঠালে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে শ্রীঘরে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

 

গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে তাকে ভুইয়া পাড়াস্থ একটি পোল্ট্রি ফার্মের অফিস কক্ষ থেকে মাটিরাঙ্গা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো: নয়ন (২৬) কে আটক করে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ। আটক ছাত্রলীগ নেতা মাটিরাঙ্গা পৌরসভার চক্রপাড়া এলাকার বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মো: আবুল কালাম‘র ছেলে।

জানা গেছে, মাটিরাঙ্গা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো: নয়ন দীর্ঘদিন ধরে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নতুনপাড়া গ্রামের মো: আবদুল মান্নানের মেয়ে স্কুল ছাত্রী মুন্নী আকতার বুলবুলী (১৮) এর সাথে বিগত তিন বছর ধরে প্রেম করে আসছে। ঘটনার দিন গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১০ টার দিকে তাকে বিয়ের কথা বলে মোবাইল ফোন করে তাদের মালিকানাধীন পোল্ট্রি ফার্মে আসতে বলে। প্রেমিকের সরল প্রস্তাবে আশ্বস্ত হয়ে মুন্নী আকতার বুলবুলী পোল্ট্রি ফার্মে আসলে ছাত্রলীগ নেতা মো: নয়ন তাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাটিরাঙ্গা থানার সাব ইনসপেক্টর কাজী মো: নাজমুল হক ও কাজী মো: মাহফুজ হাসান সিদ্ধিকের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে ছাত্রলীগ নেতা মো: নয়নকে আটক করে। এসময় পুলিশ ছাত্রলীগ নেতার ধর্শনের শিকার মুন্নী আকতার বুলবুলীকে উদ্দার করে থানায় নিয়ে আসে।

বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় ভাবে মীমাংসার নিষ্পল চেষ্ঠা করেন বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। কিন্তু ধর্ষিত মুন্নী আকতার বুলবুলী ও তার পরিবার মীমাংসা প্রস্তাবে রাজি না হয়ে মুন্নী আকতার নিজে বাদী হয়ে সোমবার বিকালের দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন-২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ০৭/৯(১) ধারা মতে ছাত্রলীগ নেতা মো: নয়নকে আসামী করে মাটিরাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করে। মাটিরাঙ্গা থানার মামলা নং-০৬।

মাটিরাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: মাইন উদ্দিন খান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আটক ছাত্রলীগ নেতা মো: নয়নকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ছাত্রলীগ, ধর্ষণ, পার্বত্যনিউজ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × four =

আরও পড়ুন