মাটিরাঙ্গায় বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

fec-image

বিনম্র শ্রদ্ধা আর নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০১তম জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত হয়েছে আজ। সারাদেশের মতো খাগড়াছড়ির মাটিরাঙায় জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, কেক কাটা, আলোচনা সভা, প্রতিবন্ধিদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতার মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে দিবসটি পালিত হয়।

এছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব উদ্যোগে দিবসটির তাৎপর্যের সাথে সঙ্গতি রেখে নানা অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

দিবসটি উপলক্ষ্যে বুধবার (১৭ মার্চ) সকালের দিকে পদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ প্রাঙনে স্থাপিত ফ্রিডম স্কোয়ারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজ তৃলা দেব। এর পরপরই বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খোরশেদ আলম, মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আলী ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার পক্ষে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

শ্রদ্ধা নিবেদনের পরপরই মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে কেক কেটে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন করেন অতিথিরা।

পরে দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজ তৃলা দেব’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মাটিরাঙা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম। মাটিরাঙ্গার সহকারি কমিশনার (ভূমি) ফারজানা আক্তার ববি, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম হুমায়ুন মোরশের খাঁন, মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মনছুর আলী প্রমুখ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

বাংলা, বাঙালী ও বঙ্গবন্ধু এক অভিন্ন স্বত্ত্বা উল্লেখ করে মাটিরাঙা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, জাতির পিতার জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামক স্বাধীন রাষ্ট্রের জন্ম হতোনা। তিনিই বাংলাদেশের অধিকারহীন মানুষকে আলোর দিশা দেখিয়েছেন। জাতির পিতার দেখানো পথ ধরেই তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজ তৃলা দেব বলেন, জাতির জনকের জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজের দক্ষতাকে রাষ্ট্রের জন্য উৎসর্গ করার আহবান জানান। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে রাষ্ট্র দিয়েছেন, আমাদের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে আমাদেরকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

পরে প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরন করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজ তৃলা দেবসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা।

অনুষ্ঠানে মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের সকল পদস্থ কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক-সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগন উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

16 − 12 =

আরও পড়ুন