মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় জগন্নাথ মন্দিরের পুরোহিত রবীন্দ্র চক্রবর্তীর পরলোকগমন

fec-image

মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় সার্বজনীন শ্রী শ্রী জগন্নাথ মন্দিরের পুরোহিত শ্রী রবীন্দ্র চক্রবর্তী (৬৬) পরলোকগমন করেছেন। তিনি বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতাল সিএসসিআরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

তিনি কয়েকদিন পূর্বে একটি সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছিলেন। এরপর থেকেই তিনি প্রথমে চট্টগ্রামের ন্যাশনাল হাসপাতাল ও পরে বেসরকারি হাসপাতাল সিএসসিআরে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শ্রী রবীন্দ্র চক্রবর্তী মাটিরাঙ্গা প্রেস ক্লাবের যুগ্ম-সম্পাদক, দৈনিক কালেরকন্ঠ এবং চট্টগ্রামের ‘সুপ্রভাত বাংলাদেশ’ পত্রিকার মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রতিনিধি সাগর চক্রবর্তী কমল’র পিতা। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ মেয়েকে রেখে গেছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মাটিরাঙ্গা কালী মন্দিরপাড়ার নিজ বাড়ির পাশে ধর্মীয় রীতিনীতি অনুযায়ী সমাহিত করা হয়।

এদিকে তার মৃত্যুতে মাটিরাঙ্গায় শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। তাকে শেষবারের মত দেখতে শতশত মানুষ ছুটে যান মরহুমের বাড়িতে। এসময় তার বাড়িতে ছুটে যান মাটিরাঙা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিরন জয় ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক মুহাম্মদ আবু দাউদ, খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী, মাটিরাঙ্গা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এমএম জাহাঙীর আলম ও সাধারন সম্পাদক মুজিবুর রহমান ভুইয়া ছাড়াও মাটিরাঙা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ।

তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি, সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য বাসন্তি চাকমা, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী, মাটিরাঙা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিরন জয় ত্রিপুরা, দৈনিক অরণ্যবার্তা সম্পাদক চৌধুরী আতাউর রহমান, খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাব সভাপতি জীতেন বড়ুয়া, খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী, মাটিরাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি এমএম জাহাঙীর আলম ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান ভুইয়া প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

10 + one =

আরও পড়ুন