মাতামুহুরী নদী থেকে নিখোঁজের ৩৮ঘন্টা পর জেলের লাশ উদ্ধার

fec-image

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীতে ডুবে নিখোঁজ জেলে গিয়াস উদ্দিনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের ৩৮ ঘন্টা পর ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার মাতামুহুরী নদীর পালাকাটা রাবারড্যাম পয়েন্ট থেকে জেলে গিয়াস উদ্দিনের লাশ উদ্ধার করেন।

মাতামুহুরী নদীতে নিখোঁজ হওয়া গিয়াস উদ্দিন উপজেলার উপকূলীয় বদরখালী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ব্লকের সিরাজ আহমদের ছেলে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার উপকূলীয় বদরখালী ইউনিয়নের ৩ নম্বর ব্লকের সিরাজ আহমদের ছেলে গিয়াস উদ্দিন ও নুরুল আবচার মেথি ছোট্ট নৌকায় ঝাঁকি জাল নিয়ে চিরিংগা পালাকাটাস্থ রাবারড্যাম পয়েন্টের নীচে মাতামুহুরী নদীতে মাছ ধরতে যায়। ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার সময় রাবারড্যামের পানির স্রোতে জাল ফেলতে গিয়ে অসাবধান বশত আকস্মিক ভাবে নৌকা উল্টে দুইজনই পানিতে ডুবে যান। নদী থেকে সাঁতার কেটে নুরুল আবচার মেথি নদীর তীরে উঠে আসলেও তার সহপাঠী গিয়াস উদ্দিন (৫৫) নদীতে ডুবে যান।

নিখোঁজের ৩৮ ঘন্টা পর উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের পালাকাটাস্থ মাতামুহুরী নদীর পয়েন্টে রাবারড্যামের নিচ থেকে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে স্থানীয়া ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করেন। পরে বদরখালী নৌ-পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের মরদেহ পুলিশ হেফাজতে রাখেন।

চকরিয়া উপজেলার বদরখালী নৌ-পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস আই) শরিয়ত উল্লাহ বলেন, মঙ্গলবার রাত থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা নিখোঁজ জেলের সন্ধানে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করেন। বুধবার সারাদিন নিখোঁজ হওয়া পয়েন্টে উদ্ধার তৎপরতা চালানোর পরও কিন্তু তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। বৃহস্পতিবার সকালে একই এলাকা থেকে ওই জেলের মরদেহ নদীতে ভেসে উঠলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে।

তিনি আরও বলেন, নিহতের মরদেহ আইনানুগ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে তিনি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: চকরিয়া, লাশ উদ্ধার
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × five =

আরও পড়ুন