মানিকছড়িতে নওমুসলিম মহিলার রহস্যজনক মৃত্যু!

IMG_6566

মানিকছড়ি (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধিঃ

মানিকছড়ির ছদুরখীলস্থ হেডম্যান পাড়ায় নও মুসলিম মহিলা ছালমা আক্তারের (২৬) এর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী মো. নুরুল ইসলাম পলাতক রয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ছদুরখীলস্থ হেডম্যান পাড়ার মংশে মারমার মেয়ে ক্রাজেরী মারমা (২২) গত ২০১০ই সালে পাশের গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের ছেলে মো. নুরুল ইসলাম এর সাথে পালিয়ে গিয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে আদালতের মাধ্যমে বিয়ে করে। এ সময় তার নাম রাখা হয় ছালমা আক্তার। বর্তমানে তাদের সংসারে দু’বছরের একটি ছেলে রয়েছে। তার নাম মো. ইমন হোসেন।

উক্ত নুরুল ইসলামের প্রথম স্ত্রী (জাহানারা বেগমের) অনুমতি ছাড়াই ২য় বিয়ে করে বাড়ীর পাশেই একটি নির্জন ঘরে তারা বসবাস করে আসছিল। তবে প্রথম সংসারে নুরুল ইসলামের ৫টি কন্যা সন্তান রয়েছে। গ

তকাল বুধবার রাত আনুমানিক ৭/৮টার দিকে ছালমা থাকার ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে মর্মে খবর প্রচার করে স্বামী পালিয়ে যায়।

পরে পুলিশ খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে নুরুল ইসলামের ১ম স্ত্রী ও মা জোলেখা বেগমকে সাথে নিয়ে নির্জন ঘরের দরজাটি খোলে। এ সময় শোবার চৌকির পাশে ঘরের বীম এর সাথে ঝুলানো ছালমার লাশ ঝুলানো দেখতে পাওয়া যায়। তবে তার হাঁটু মাটিতে লাগানো ছিল। তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ এ মৃত্যুটিকে রহস্যজনক বলে মনে করছে।

এ প্রসঙ্গে মানিকছড়ি থানার ওসি মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে এবং একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট প্রাপ্তি সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে নিহতের স্বামী মো. নুরুল ইসলাম পলাতক থাকায় মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। আসলে এটি আত্মহত্যা নাকি হত্যা তা নিয়ে এলাকায় প্রশ্ন সৃষ্টি হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − 16 =

আরও পড়ুন