মানিকছড়িতে সাবেক চালক সমিতির নেতার লাশ উদ্ধার!

fec-image

মানিকছড়ি উপজেলার সাবেক জিপ চালক ও জিপ চালক সমিতির সভাপতি এবং বর্তমান বিশিষ্ট কাঠ ব্যবসায়ী আবদুল ছাদেক (৬০)এর গলায় ফাঁস দেয়া লাশ বাড়ীর পাশ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ডাইনছড়ি এলাকার মৃত আলী হোসেন এর মেঝ ছেলে আবদুল ছাদেক এক সময়ে জিপ চালক ও পরবর্তীতে চালক সমিতির সভাপতি ছিলেন। গাড়ীর চালক ও চালক সমিতির সভাপতি থাকাবস্থায় গত প্রায় দুই যুগ ধরে সে আন্তঃ উপজেলার একজন বিশিষ্ট কাঠ ব্যবসায়ী হিসেবে কোটি টাকার মালিক বনে যান।

সম্প্রতিকালে উপজেলার বাজারস্থ সাবেক খলিল সাহেব এর টিলায় মুসলিমপাড়ায় স্থায়ী বসবাস গড়ে তোলেন। আজ ৫ মে (বুধবার) সকাল সাড়ে ৬টার পর বাড়ীর অদূরে বড় বহেরা গাছে গলায় ফাঁস দেয়া লাশ দেখতে পায় প্রতিবেশিরা। পরে নিহতের স্ত্রী জুলেখা বেগম ও ছেলে ওমর ফারুক(২৫) খবর পেয়ে ঘুম থেকে উঠে কান্নাকাটি শুরু করলে প্রতিবেশিরা বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করেন।

খবর পেয়ে অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন, বিষয়টি সিনিয়র পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইফুল ইসলামকে অবহিত করে উভয়ে ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় এবং লাশের সুরতহাল শেষে আশেপাশের লোকজন, নিহতের স্ত্রী, সন্তান ও আত্মীয়স্বজনের সাথে কথা বলে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

নিহত আবদুল ছাদেক ৭ ভাই, ২ বোনের মধ্যে চতুর্থ। নিহতের উদ্ধারকৃত লাশের প্রাথমিক নমূনায় এটি আত্মহত্যা বলে পুলিশ ধারণা করলেও নিহতের ব্যবসা কেন্দ্রীক বা পারিবারিক কোন ঝক্কি-ঝামেলা রয়েছে কী না সে বিষয়টি মাথায় রেখে পুলিশ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে।

এদিকে এঘটনায় প্রাথমিকভাবে একটি ইউডি মামলা রেকর্ড করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মানিকছড়ি সার্কেল এর সিনিয়র পুলিশ সুপার মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ বিষয়ে বলেন, কাঠ ব্যবসায়ী আবদুল ছাদেক এর লাশের খবর পেয়ে দ্রুত অফিসার ইনচার্জসহ পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়। লাশের ধরণ দেখে আপাতত মনে হচ্ছে এটি একটি আত্মহত্যা। তবে নিহতের ব্যবসা, পারিবারিক বিষয়সহ নানা বিষয় মাথায় রেখে আমরা কাজ করছি। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ক্লু উদঘাটনে পুলিশ ইতোমধ্যে কাজ শুরু করছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কাঠ ব্যবসায়ীর, মানিকছড়িতে, লাশ উদ্ধার
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − three =

আরও পড়ুন