বাড়ি থেকে বেরিয়ে মানিকছড়ির রুপালি মারমা ৫ দিনেও ঘরে ফিরেনি

fec-image

মানিকছড়ি উপজেলার বাটনাতলীর নামারপাড়ার মহাজন বাড়ির রিপ্রুচাই মারমার স্কুল পড়ুয়া মেয়ে রূপালী মারমাকে (১৬) বিভিন্ন বিষয়ে মা বকাঝকা করলে রবিবার (২ জানুয়ারি) দুপুরের পর ঘরে কাউকে কিছু না বলে সে ঘর থেকে বেরিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) ৫ দিন অতিবাহিত হলেও রুপালী মারমা ফিরে না আসায় পিতা-মাতা ও পরিবারে দুশ্চিন্তা বাড়ছে।

রুপালী মারমার অভিভাবক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাটনাতলী ইউনিয়ের নামারপাড়া এলাকার মহাজন বাড়ির রিপ্রুচাই মারমার মেয়ে বাটনাতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল ছাত্রী রুপালী মারমাকে পারিবারিক নানা বিষয়ে তার মা বকাঝকা করলে গত ২ জানুয়ারি দুপুরে বাড়ি থেকে কাউকে কিছু না বলে বেরিয়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন তাদের আত্বীয়স্বজনের বাড়িসহ বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজির পর রুপালীর সন্ধান না পেয়ে ৩ জানুয়ারি মানিকছড়ি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি নং ১০৯ রুজু করেন।

ঘটনার আজ (৭ জানুয়ারি) ৫ দিন অতিবাহিত হতে চললেও নিখোঁজ থাকা রুপালী মারমার কোন সন্ধান না পেয়ে মা- বাবা ও আত্মীয়স্বজনদের মাঝে দুশ্চিন্তা বাড়ছে। নিখোঁজ রুপালী মারমার পিতা রিপ্রুচাই মারমা পার্বত্যনিউজকে জানান, মেয়ে ঘরে কাউকে কিছু না বলে পালিয়ে গেছে। আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে খোঁজ নিয়েছি, নাই।

তিনি বলেন, মেয়ের সাথে এলাকার কোন ছেলের প্রেমঘটিত সম্পর্কও খুঁজে পায়নি। তবে এলাকার একটি ছেলেকে সন্দেহ হলেও ওই ছেলে এখনো বাড়িতেই আছে। তাই তাকে অপরাধী বলতেও পারছিনা। অন্যকোন মাধ্যমে রুপালী চট্টগ্রামে পালিয়ে থাকতে পারে। আমরা বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজ নেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করছি।

মানিকছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন পার্বত্যনিউজকে জানান, মেয়েটির সন্ধানে বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ চলছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মানিকছড়ি, রুপালী মারমা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 − two =

আরও পড়ুন