‘মানিকছড়ি গ্র্যাজুয়েট ফোরাম’ নামক মানবিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ

fec-image

ভোটার সূত্রে মানিকছড়ি উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা স্নাতক/ স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী সকল ছেলে-মেয়ের অংশগ্রহনের সুযোগ রেখে ‘মানিকছড়ি গ্র্যাাজুয়েট ফোরাম’ নামক একটি মানবিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। এতে বাটনাতলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম মোহন’কে আহ্বায়ক এবং উদ্যোক্তা, সংগঠন ও সাংবাদিক আবদুল মান্নান’কে সদস্য সচিব করে ১১সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ও ৫ সদস্য বিশিষ্ট পরামর্শক/ উপদেস্টা কমিটি গঠন করা হয়েছে।

৩ আগস্ট বিকাল সাড়ে ৩টায় মানিকছড়ি প্রেসক্লাব মিলনায়তনে উপজেলার প্রথম গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রিধারী ও তিনটহরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক এবং উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির তিন, তিনবার মনোনীত সভাপতি মো. আতিউল ইসলাম(এম.এ, এম,এড) এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অতিথি ছিলেন, ১নং মানিকছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুল রহমান ফারুক, বাটনাতলী ইউপি চেযারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম মোহন, মানিকছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেযারম্যান এবং যোগ্যাছোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেহেবুবুল কালাম আজাদ,বড়ডলু উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. বশির আহম্মদ, তিনটহরী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. বাহার মিয়া প্রমুখ।

সভার শুরুতে উদ্যোক্তা,  সংগঠক ও সাংবাদিক আবদুল মান্নান সভার সঞ্চালনা করেন এবং সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন উপজেলার সকল গ্র্যাজুয়েট (স্নাতক/ স্নাতকোত্তর) ভাই-বোনদের সমন্বয়ে একটি ফোরাম গঠন পূর্বক ‘উপজেলার সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠিকে বিশেষ সহায়তা প্রদান’করা। অরাজনৈতিক ও অ-সাম্প্রদায়িক চেতনায় মানবিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করাই হবে এই সংগঠনের মূলমন্ত্র। পরে তিনি সকলের সামনে সংগঠনের নামকরণ ও লক্ষ্য, উদ্দেশ্য তুলে ধরেন।

এতে দেখা যায়, মূলত চারটি লক্ষ্য-উদ্দেশ্য সামনে রেখে সংগঠনের যাত্রা শুরু করার চিত্র তুলে ধরা হয়। ১. উচ্চশিক্ষা অর্জনে পরামর্শ, সহায়তা ও শিক্ষাবৃত্তি। ২. কর্মসংস্থান ও বেকারত্ব দূরীকরণে বিশেষ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা। ৩. দুস্থ, অসহায়দের স্বাস্থ্যসেবায় সহায়তা প্রদান। ৪.মাদক/বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ ও নির্যাতিত, নিপীড়িত নারীদের আইনি/আর্থিক সহায়তা প্রদান ইত্যাদি।

পরে উপস্থিত সকলে সংগঠনের প্রস্তাবিত নাম(মানিকছড়ি গ্র্যাজুয়েট ফোরাম) ও লক্ষ্য-উদ্দেশ্যগুলো সমর্থন পূর্বক আগামী ৩মাসের জন্য ১১ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহবায়ক কমিটি ও ৫সদস্য বিশিষ্ট একটি পরামর্শক বা উপদেস্টা কমিটি গঠন করেন।

পরামর্শক বা উপদেস্টারা হলেন, ১. তিনটহরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.আতিউল ইসলাম,২.সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও বর্তমান জেলা পরিষদ সদস্য এম.এ.জব্বার, ৩. ১নং মানিকছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, ৪. সাবেক চেয়ারম্যান ও যোগ্যাছোলা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মেহেবুবুল কালাম আজাদ, ৫.বাটনাতলী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম।

১১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি’র আহ্বায়ক হলেন, বাটনাতলী ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম মোহন(বি.এ,বিএড), যুগ্ন আহবায়ক মানকিছড়ি গিরিমৈত্রী সরকারী ডিগ্রী কলেজ প্রভাষক ও সাংবাদিক মো. মনির হোসেন, সদস্য সচিব হিসেবে উদ্যোক্তা, বিশিষ্ট সংগঠক, সাংবাদিক ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির টানা ৫ম বার মনোনীত সাধারণ সম্পাদক এবং তিনটহরী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী গ্রন্থাগারিক আবদুল মান্নান(বি.এ)।

সদস্য হিসেবে, উপজেলা গ্রাম ডাক্তার কল্যাণ সোসাইটির সভাপতি ডা. অমর কান্তি দত্ত, সাধারণ সম্পাদক ও লক্ষ্মীছড়ি সরকারী ডিগ্রি কলেজ প্রভাষক ডা. মো. রমজান আলী, মানিকছড়ি ইংলিশ স্কুল অধ্যক্ষ মো. গোলাম রসুল, বড়ডলু উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. বশির আহম্মদ, তিনটহরীর মো. আলমগীর হোসেন খাঁ, ছদুরখীল সামাজিক সংগঠক উগ্যপ্রু মারমা, মানিকছড়ি ইউনিক কম্পিউটার এন্ড কোচিং সেন্টার পরিচালক মো. আবদুস সামাদ ও মো. নজরুল ইসলাম প্রমূখ’কে মনোনীত করা হয়। উক্ত আহবায়ক কমিটি আগামী ৩ মাসের মধ্যে উপজেলা সকল গ্র্যাজুয়েট( স্নাতক/ স্নাতকোত্তর) ছেলে-মেয়ে’কে সংগঠনের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য জানিয়ে সদস্যভুক্ত করা চেষ্টা করে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে সাধারণ সভা আহব্বান করবেন।

পরে সভাপতি সকলের সু-স্বাস্থ্য কামনা করে সমাপনী বক্তব্যে বলেন, মানিকছড়ি গ্র্যাজুয়েট ফোরাম জনপদে মানবিক সংগঠন হিসেবে অসহায়দের পাশে দাঁড়াবে এবং সুশীল সমাজ প্রতিষ্ঠায় সেতুবন্ধন তৈরিতে কাজ করবে, এটাই সকলের প্রত্যাশা। আমরা যারা পরামর্শক/উপদেস্টা মনোনীত হয়েছি আমরা এদের কার্যক্রম মনিটরিং পূর্বক সার্বক্ষনিক পরামর্শ প্রদান করবো।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

five + 6 =

আরও পড়ুন