মায়ের লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষাকেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষার্থী

fec-image

বুধবার দিবাগত রাতে না ফেরার দেশে চলে যান মা। মা মারা যাওয়ায় কান্নায় ভেঙে পড়ে বোরহান উদ্দীন সিফাত। মায়ের কথা ভেবে ও স্বজনদের কথামতো পরীক্ষাকেন্দ্রে যেতে রাজি হয় সে।

বোরহান উদ্দিন সিফাত ঈদগাঁহ রশিদ আহমদ ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী ও চলমান এইচএসসি পরীক্ষার্থী। সে ঈদগাঁও উপজেলার প্রবীণ সাংবাদিক ও অবিভক্ত ঈদগাঁও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, ঈদগাঁও উপজেলা প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্য বিআর হাশেমী বদরুর ছেলে।

বুধবার (১০ জুলাই) সোয়া ৫ টার দিকে নিজ বাস ভবনে ইন্তেকাল করেন সিফাতের মাতা জেসমিন আক্তার।

১১ জুলাই সকাল সাড়ে ৯ টায় তার মায়ের জানাজা ও দাফনের সময়ক্ষন নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু সকাল ১০ টায় রামু ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে চলমান এইচএসসি পরীক্ষায় তাকে অংশগ্রহণ করতে হচ্ছে বিধায় মাকে কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত না করেই তাকে ছুটতে হচ্ছে পরীক্ষা কেন্দ্রে।

সহধর্মিণী হারানো ঈদগাঁও’র বর্ষীয়ান সাংবাদিক বিআর হাশেমী বদরু অশ্রু সজল নয়নে জানান, তার কনিষ্ঠ সন্তান সিফাতকে মাকে চিরবিদায় জানাতে না পারার আফসোস নিয়েই পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে হচ্ছে । যা বাবা হিসেবে তাকে এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের চরম ব্যথিত করছে। যা আমরণ পরিবারের সদস্যদের স্মৃতির পাতায় ভেসে উঠবে বলে আক্ষেপ করেন।

এসময় মরহুমার কনিষ্ঠ সন্তান এইচএসসি পরীক্ষার্থী সিফাতকে সান্ত্বনা দিতে তার সহ-পার্টিরাও ভিড় জমাতে শুরু করেছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন