মিয়ানমারে বিক্ষোভে গুলি, নিহত ৯

fec-image

আবারও মিয়ানমারে পুলিশের গুলিতে ৯ বিক্ষোভকারী নিহত এবং কয়েকজন আহত হয়েছেন। টানা বিক্ষোভের অংশ হিসেবে বুধবার (৩ মার্চ) রাস্তায় নামা সাধারণ মানুষকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ গুলি চালালে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। দেশটির পরিস্থিতি শান্ত করতে প্রতিবেশি দেশগুলোর নেওয়া উদ্যোগের পরদিনই এই ঘটনা ঘটল।

দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ে পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে ২ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া পুলিশের গুলিতে ইয়াঙ্গুনে নিহত হয়েছেন এক বিক্ষোভকারী।

মনিওয়া গেজেট নামে এক বার্মিজ পত্রিকার বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় শহর মনিওয়াতে বিক্ষোভ দমনে পুলিশ গুলিবর্ষণ করলে পাঁচজন নিহত হন। এছাড়া মাইয়িংগিয়ান শহরেও এক বিক্ষোভকারীকে গুলি করে পুলিশ হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে মোয়ে মিন্ট হেইন নামে ২৫ বছর বয়সী এক বিক্ষোভকারী।

তিনি বলেন, মাইয়িংগিয়ান শহরে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে এক কিশোর। বিক্ষোভের মধ্যে পুলিশ তার মাথায় গুলি করলে সে নিহত হয়। এছাড়া নিজেও পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে টেলিফোনে রয়টার্সকে জানিয়েছেন তিনি।

এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে ক্ষমতাসীন মিলিটারি কাউন্সিলের মুখপাত্রের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার কথা জানিয়েছে রয়টার্স।

১ ফেব্রুয়ারি সামরিক বাহিনী অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে অস্থিতিশীল হয়ে উঠেছে মিয়ানমার। অভ্যুত্থানের পর দেশটির নির্বাচিত নেত্রী অং সান সু চি ও তার দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্র্যাসির (এনএলডি) নেতাকর্মীদের আটক করে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। টানা আন্দোলনের একপর্যায়ে গত রোববার আন্দোলনরত মানুষের ওপর সরাসরি গুলি চালিয়ে ১৮ জনকে হত্যা করে পুলিশ। এর আগের ৩ জনসহ বুধবার পর্যন্ত দেশটিতে ৩০ জন নিহত হলেন।

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া একটি লাইভ ভিডিওতে দেখা যায়, বুধবার মিয়ানমারের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ। একপর্যায়ে শিক্ষকের ইউনিফর্ম পরে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া এক নারীকে আহত অবস্থায় চিৎকার করতে শোনা যায়।

বার্মিজ সংবাদমাধ্যম ‘মিয়ানমার নাউ’-এর বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, মান্দালয় শহরে বিক্ষোভকারীদের ওপর রাবার বুলেট নিক্ষেপ করার পর ৯ জন আহত হয়েছেন। এছাড়া মাইয়িংগিয়ান এবং মাংওয়ে শহরে বিক্ষোভ দমাতে পুলিশ গুলিবর্ষণ করেছে বলে শোনা গেলেও রয়টার্স এই তথ্য নিশ্চিত করতে পারেনি। এছাড়া পুলিশের হামলায় মনিওয়া শহরে পাঁচ বিক্ষোভকারী আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, বুধবার ইয়াঙ্গুনের রাস্তায় জড়ো হওয়া বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিতে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। তবে পশ্চিমাঞ্চলীয় চিন প্রদেশ, উত্তরাঞ্চলীয় কাচিন প্রদেশ, উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শান প্রদেশসহ শাগাইং এবং দায়েই প্রদেশেও বুধবার অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছে সাধারণ মানুষ।

ফাইল ছবি

মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় চিন প্রদেশে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া সালাই লিয়ান নামে এক বিক্ষোভকারী বুধবার রয়টার্সকে বলেছেন, ‘দেশের কেউ একনায়কতন্ত্র বা সামরিক শাসন চায় না। এটা বোঝানোই আমাদের (বিক্ষোভের) লক্ষ্য।’

সূত্র: রয়টার্স

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + three =

আরও পড়ুন