মিয়ানমারে মুসলিম নিধন বন্ধ করছে না রক্তপিপাসু উগ্র বৌদ্ধরা

জ্বলছে মসজিদসহ মুসলিম গ্রাম; উপভোগ করছে অস্ত্রধারী দাঙ্গাবাজরা (ফাইল ছবি)

 

 ডেস্ক নিউজ

মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া মুসলিম বিরোধী দাঙ্গায় আরও এক মুসলমান নিহত হয়েছেন। দেশটির ওক্কান প্রদেশের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সরকারি কর্মকর্তা বলেছেন, উগ্র বৌদ্ধদের হামলায় ২৯ বছর বয়সী এক মুসলমান নিহত ও অপর নয় জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবারের ওই হামলায় বেশ কয়েকটি মসজিদ ও মুসলমানদের অন্তত ৮০টি বাড়ি জ্বালিয়ে দিয়েছে দাঙ্গাকারীরা। একজন মুসলিম ‘মহিলা’ একজন বৌদ্ধ ভিক্ষুর ওপর ‘হামলা’ চালালে নতুন করে এ দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে বলে ওই কর্মকর্তা দাবি করেন। মিয়ানমারের বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গুন থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ওক্কান শহরে এ ঘটনা ঘটে।

এ দাঙ্গায় জড়িত থাকার দায়ে ওই মুসলিম মহিলাসহ ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। ওক্কান শহরের কাছে মিয়ে লং সাখান গ্রামে যখন দাঙ্গাকারীরা একটি মসজিদে লুটপাট চালিয়ে সেটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় তখন সেটিকে রক্ষার জন্য পুলিশ এগিয়ে আসেনি মুসলমানরা অভিযোগ করেছেন।

৪৮ বছর বয়সী মুসলিম সোয়ে মিইন্ত বলেন, “২০০ থেকে ৩০০ দাঙ্গাকারী মোটর সাইকেলে করে আমাদের গ্রামে হানা দিয়ে মসজিদটি জ্বালিয়ে দেয়। তাদের শো-ডাউন দেখে আমরা পালিয়ে যাই এবং বৌদ্ধরা নির্বিঘ্নে তাদের অপকর্ম সম্পন্ন করে চলে যায়।”

ঘটনাস্থল থেকে বার্তা সংস্থা এএফপি’র একজন সংবাদদাতা জানিয়েছেন, মসজিদটি সম্পূর্ণ ভস্মিভূত হওয়ার পাশাপাশি আশপাশের অন্তত ১০টি বাড়ি আগুনে পুড়ে গেছে। মঙ্গলবার বিকেলের ওই ঘটনার পর বুধবার সকালে ৩০ পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

সোয়ে মিইন্ত বলেন, “দাঙ্গাবাজরা আবার আমাদের গ্রামে হামলা চালিয়ে আমাদের সবাইকে হত্যা করার হুমকি দিয়ে গেছে। কাজেই আমাদের জরুরি ভিত্তিতে নিরাপত্তা প্রয়োজন।”

মিয়ানমারের আরাকান প্রদেশের রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর গত বছরের ভয়াবহ দাঙ্গার রেশ কাটতে না কাটতেই দেশটির অন্যান্য অঞ্চলেও মুসলিম বিরোধী দাঙ্গা শুরু করেছে উগ্র বৌদ্ধরা। গত বছরের রোহিঙ্গা বিরোধী দাঙ্গায় কয়েক হাজার মুসলমান নিহত ও লাখ লাখ মুসলিম সহায়-সম্বল হারিয়ে সম্পূর্ণ নিঃস্ব হয়ে যান।

গত মার্চ মাসে মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলীয় মেইকটিলা শহরে নতুন করে দাঙ্গা বাধিয়ে অন্তত ৪৩ জন মুসলমানকে হত্যা করে বৌদ্ধরা। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলেও মুসলমানদের রক্ষায় এগিয়ে আসেনি। তারা বরং তাড়িয়ে তাড়িয়ে মুসলিম হত্যা উপভোগ করেছে এবং এসব লোমহর্ষক দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করেছে।

সম্প্রতি একটি পশ্চিমা সংবাদ সংস্থা মিয়ানমারের পুলিশের তোলা দাঙ্গার একটি ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × two =

আরও পড়ুন