মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হামলায় আবারো ২ রোহিঙ্গা নিহত

fec-image

 আরাকানে বুছিডং শহরতলীতে মুসলিম গ্রামে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মর্টার সেল হামলায় মুসলিম নারী সহ গ্রামবাসী ২জন নিহত ও আহত হয়েছে ৭জন।

শুক্রবার রাত ১ঃ৩০টার সময়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনীরা একতরফা ভাবে মুসলিম গ্রামে এই মর্টার সেল হামলা চালিয়েছে।

জানা যায়, গত ২৩/০১/২০২০ইং আন্তর্জাতিক বিচার আদালত (ICJ) মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে যে রায় ও শুনানি প্রদান করেছে, তার অসন্তুষ্ট হয়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ৫৫১নং ব্যাটালিয়ন কর্তৃক বুছিডং শহরতলীর কাংডং মুসলিম গ্রামে ভারী ৩টি মর্টার সেল নিক্ষেপ করে এই হামলা চালিয়েছে। ঘটনাস্থলে একজন নিহত ও আহতদের বুছিডং হাসপাতালে নেয়ার পথে আরো একজনের মৃত্যু হয়।

আন্তর্জাতিক মহলে মিয়ানমার সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ার কারণে মিয়ানমার সেনাবাহিনীরা প্রতিশোধ হিসাবে মুসলিম সহ সমগ্র আরাকানীদের আরো হামলা চালাতে পারে বলে ধারণা করছে।

গত সপ্তাহে মিয়ানমারকে রোহিঙ্গা হত্যা বন্ধসহ গণহত্যার প্রচেষ্টা বা ষড়যন্ত্র না করার জন্য দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেয় আন্তর্জাতিক আদালত।

ওই নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে যে, রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় কী ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক আদালতের কাছে আগামী চার মাসের মধ্যে মিয়ানমারকে অবশ্যই প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে। প্রথম প্রতিবেদন দাখিলের পর প্রতি ছয় মাস পরপর একই ধরনের প্রতিবেদন আদালতের কাছে উপস্থাপন করতে হবে।

গাম্বিয়া ওই প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে আদালতের কাছে প্রয়োজনীয় বিষয়ে আবেদন করতে পারবে। মিয়ানমারকে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত সব ধরনের নির্যাতন-নিপীড়নের প্রমাণাদি সংরক্ষণ করতে হবে।

২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর কয়েকটি চেকপোস্টে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের নামে সেখানে রোহিঙ্গাদের হত্যা, ধর্ষণ এবং তাদের বাড়ি-ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন থেকে বাঁচতে নিজেদের বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে লাখ লাখ রোহিঙ্গা

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: মিয়ানমার, রোহিঙ্গা নিহত
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − 7 =

আরও পড়ুন