রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কর্তৃক

ম্রো-ত্রিপুরার আরো ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা, ভূমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটির নিন্দা

fec-image

বান্দরবানের লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নে লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড-এর ডেপুটি ম্যানেজার আব্দুল মালেক কর্তৃক গত ৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ আবারো রংধজন ত্রিপুরা, লংকম ম্রোসহ ১৪ জন গ্রামবাসীর নামে মামলা দেয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে লামা সরই ভূমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটি।

লামা সরই ভূমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটির সদস্য মতি ত্রিপুরার সাক্ষতির এক বিবৃতিতে জানা যায়, বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর ২০২২) লামা সরই ভূমি রক্ষা কমিটি আহ্বায়ক রংধজন ত্রিপুরা ও সদস্য সচিব লাংকম ম্রো সংবাদ মাধ্যমে এক বিবৃতিতে এই নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, বান্দরবানের লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নে ভূমিদস্যু লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ৩টি পাহাড়ি গ্রামের (লাংকম ম্রো পাড়া, জয় চন্দ্র পাড়া ও রেংয়েন ম্রো পাড়া) পাহাড়িদের ভোগদখলীয় ৪০০ একর জুমভূমি জবরদখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে গত ৯ এপ্রিল বাগান-বাগিচা কেটে দেওয়া, ২৬ এপ্রিল জুমভূমি ও বাগান-বাগিচা আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া ও ১৩ জুলাই ভূমি রক্ষা আন্দোলনের নেতা রংধজন ত্রিপুরার ওপর হামলা চালানো হয়েছে। এসব ক্ষতিসাধন করেও ক্ষান্ত না হয়ে গত ১৪ আগস্ট ২০২২ রাবার ইন্ডাস্ট্রিজের সদ্য নিযোগ প্রাপ্ত ডেপুটি ম্যানেজার আব্দুল মালেক লামা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে লামা সরই ভূমি রক্ষা সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক রংধজন ত্রিপুরাসহ ১১ গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সর্বশেষ গত ৪ সেপ্টেম্বর একই ব্যক্তি ভূমি রক্ষার আন্দোলনে যুক্ত গ্রামবাসীদের হয়রানির উদ্দেশ্যে একই আদালতে আবারো ১৪ জনের নামে নতুন আরেকটি মিথ্যা মামলা (সিআর মামলা নং-৩১৩/২০২২) দায়ের করেছেন। এছাড়াও ভূমি দস্যুরা গত ১ সেপ্টেম্বর লাংকম পাড়ায় ম্রোদের মিষ্টি কুমড়ার ক্ষেত থেকে ২৫ মণের অধিক মিষ্টি কুমড়া লুট করে নিয়ে গেছে এবং গতকাল রেংয়েন পাড়া ঝিড়িতে ভূমিদস্যুরা বিষ ঢেলে দিয়েছে বলে নেতৃবৃন্দ অভিযোগ করেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড’র ডেপুটি ম্যানেজার আব্দুল মালেক কর্তৃক দায়েকৃত মামলায় উত্থাপিত সকল অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলেন, মূলত ভূমি রক্ষার জন্য আন্দোলনকারী গ্রামবাসীদের হয়রানি ও তিন পাড়াবাসীর ৪০০ একর জুমভূমি জবরদখল করতেই পরিকল্পিতভাবে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ভূমি রক্ষা আন্দোলনকারী গ্রামবাসীদের নামে দায়েরকৃত সকল মামলা প্রত্যাহার, লামা রাবার ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেড কর্তৃক ম্রো ও ত্রিপুরাদের ৪০০ একর জমি জবরদখল চেষ্টা বন্ধ করা, লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজের সকল ইজারাচুক্তি বাতিল করা এবং পাহাড়িদের ঐতিহ্যগত ও প্রথাগত ভূমি অধিকার নিশ্চিতের দাবি জানান।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − seven =

আরও পড়ুন