যেনে নিন বালিশের কভার কতদিন ব্যবহার করবেন?

fec-image

একটি ভালো বালিশ আপনার ঘুমকে আরও গভীর করতে সাহায্য করে। সবার ঘরেই বালিশ আছে, মাথার নিচের তুলতুলে বালিশ না দিলে কারও ভালোভাবে ঘুম হয় না।

তবে একটি বালিশের কভার ঠিক কতদিন ব্যবহার করা উচিত, তা অনেকেরই হয়তো অজানা। বিশেষজ্ঞদের মতে, পরপর দু’দিন একই বালিশ ব্যবহার করা উচিত নয় কারও। এ ক্ষেত্রে শারীরিক নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন।

এর কারণ হলো, একটি বালিশ ব্যাকটেরিয়া ও বিভিন্ন জীবাণুর আঁতুরঘর হিসেবে বিবেচিত। চুল ও ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি করে একটি নোংরা বালিশের কভার।

নিয়মিত বিছানার চাদর-বালিশের কভার পরিবর্তন না করলে শারীরিক বিভিন্ন অসুস্থতায় ভুগতে হতে পারে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। জেনে নিন নোংরা বালিশের কভার কোন কোন রোগের কারণ হতে পারে-

খুশকির সমস্যা বাড়ে

খুশকির সমস্যায় কমবেশি সবাই ভোগেন। এর জন্য দায়ী হতে পারে আপনার বালিশের কভার। খুশকি ও তেল একসঙ্গে মিশিয়ে ত্বক ও চুল উভয়েরও ক্ষতি করে।

ব্রণ হতে পারে

বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতি সপ্তাহে আপনার বালিশের কভার না পাল্টালে হতে পারে ব্রণ কিংবা ছলির মতো সমস্যা। তাই নিয়মিত বালিশের কভার পরিবর্তনের মাধ্যমে আপনি ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা কমাতে পারেন।

ধূলিকণা আকর্ষণ করে

আপনি যখন ঘুমাতে যান; তখন আপনার শরীরের ঘাম, মেকআপের অবশিষ্টাংশ ও ৫০ মিলিয়ন মৃত ত্বকের কোষ শোষণ করে ত্বক। ডাস্ট মাইট (পোকা) ঘাম ও মৃত ত্বকের কোষগুলোতে বেড়ে যায়। আপনি যদি বালিশের কভার ঘন ঘন পরিবর্তন না করেন, তাহলে এই পোকারা ত্বকের আরও ক্ষতি করে।

চুলের ক্ষতি হতে পারে

আপনি যতই ব্যয়বহুল শ্যাম্পু ব্যবহার করুন, আর না হয় সেলুন গিয়ে ট্রিটমেন্ট করুন বালিশের কভার পরিবর্তন না করে চুলের বিভিন্ন সমস্যা দূর হবে না। চুল পড়ার সমস্যায় কমবেশি সবাই ভোগেন।

তবে অনেকেরই জানা নেই, নোংরা ও সঠিক বালিশের কভারে ব্যবহার না করার কারণে চুলের বারোটা বাজতে পারে। এজন্য সাটিন বা সিল্ক কাপড়ের বালিশের কভার ব্যবহার করা উচিত।

আপনার ইমিউন সিস্টেমকে প্রভাবিত করে

বালিশে থাকা ব্যাকটেরিয়া ও ইস্ট হাঁপানি, ব্রঙ্কাইটিস ও ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ায়। তাই নিজেকে সুস্থ রাখতে সপ্তাহে অন্তত একবার বালিশের কভার ধুতে হবে।

ন্যাশনাল স্লিপ ফাউন্ডেশন প্রতি ছয় মাস অন্তর, গরম পানি ও হালকা ডিটারজেন্ট দিয়ে বালিশ ধোয়ার পরামর্শ দেয়। বেশিরভাগ ডাউন/ফেদার ও ডাউন-অল্টারনেটিভ বালিশ ওয়াশারে দেওয়া যেতে পারে।

তবে বেশিরভাগ ফোম বালিশের ক্ষেত্রে তা উচিত নয়। কিছু বালিশের জন্য ড্রাই ক্লিনিং সবচেয়ে ভালো হতে পারে। আপনার বালিশের জন্য প্রস্তুতকারকের নির্দেশাবলী পড়ুন।

কত ঘন ঘন বালিশ পরিবর্তন করা উচিত?

বালিশ নিয়মিত ধোয়া বা পরিবর্তন করা উচিত। উদাহরণস্বরূপ, কিছু বিশেষজ্ঞ প্রতি দু’দিনে বালিশ পরিবর্তন করার পরামর্শ দেন। অন্যরা সুপারিশ করে, সপ্তাহে একবার ধোয়া উচিত। এতে জীবাণু ও অ্যালার্জেনগুলোকে ধ্বংস করা যায়।

আর আপনি যদি প্রায়ই মেকআপ ত্বকে থাকা অবস্থায়ই শুতে যান, তাহলে আপনার বালিশগুলো আরও ঘন ঘন ধোয়া উচিত। ত্বক, চুলসহ ভালো ঘুমের জন্য একটি সিল্ক বা সুতির কভার বেছে নেওয়া ভালো।

সূত্র: বোল্ডস্কাই

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 3 =

আরও পড়ুন