রাঙামাটি কাপ্তাইয়ের একজন মানবিক পুলিশ খায়রুল

fec-image

রাঙামাটি কাপ্তাইয়ের একজন মানবিক পুলিশ মো. খায়রুল ইসলাম(এটিএসআই)। দীর্ঘ ১১বছর যাবৎ রাঙামাটি তথা কাপ্তাইয়ে ট্রাফিক বিভাগে দায়িত্বরত রয়েছে। দায়িত্বরত থাকার পাশা, পাশি মানবিক তথা সামাজিক কাজ করে মানুষের প্রসংশায় মুখরিত হয়েছে। গত কয়েক বছর কাপ্তাইয়ে ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত থাকা কালিন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সচেতনতামূলক চালকদের নিয়ে সভা, ধীরে গাড়ি চালানাসহ বিভিন্ন সামাজিক কাজ করেছে।

পরে রাঙামাটি সদরে বদলী করা হলে এ মানবিক পুলিশ সরকারি সেবা,সড়কের সেবাসহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে আরোও উৎসর্গ করেছে। রাঙামাটি সরকারি কাজে কর্মরত থাকা অবস্থায় সঠিকভাবে দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করেছে। সড়কের ওপর কোন দুর্ঘটনা ঘটলে তিনি তাৎক্ষণিক সমাধন দিয়েছে।সিএনজি চালক নাছির জানান, উনি পুলিশনা একজন ফেরেশতা। তার মত লোক হয়না। ট্রাক চালক আবু বক্কর বলেন, খায়রুল ভাই থাকলে আমরা কোন চিন্তা করিনা।

আমাদের কোন সমস্য হলে উনি দ্রুত সমাধন করে দেয়। সম্প্রতি রাঙামাটি পাহাড় ধসের পর সড়কে মাটি ভরাট হয়ে যানচলাচল বন্ধ। তিনি নিজে গিয়ে কাজ করে সড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক করেছে। এছাড়া রাঙামাটি বেশ কয়েটি মসজিদে ফ্যান, প্লাস্টিক চেয়ার ও আর্থিকভাবে সাহায্য সাহযোগিতা করছে। করোনাকালিন সময় মসজিদে মুসল্লি প্রবেশের সময় মাস্ক পরুন, স্বাস্থ্য সচেতনতা মেনে চলুন বিভিন্ন ব্যানার, সাইনবোর্ড ও ফেস্টুন নিজ উদ্যোগে লাগিয়ে জনগণকে সচেতন করেছ। এবং অনেক অসহায়, প্রতিবন্ধি, মানসিক ভারসাম্যহীন ভবঘুরেদের ঔষধপত্র ও খাবার দিয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে মো. খায়রুল ইসলাম(এটিএসআই) বলেন, সরকারি কাজের ফাঁকে আমি দায়িত্ব ও সামাজিক কর্তব্য মনে করে পালন করেছি। যতদিন আমি সরকারি কাজ করব ততদিন নিষ্ঠাসহিত কাজ করে যাব।পাশা, পাশি যতটুকু সম্ভব সামাজিক কাজ করব।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve − 10 =

আরও পড়ুন