রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ি ঢলে কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত

fec-image

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে রাঙ্গামাটিতে থেমে থেমে ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। অতি বর্ষণের ফলে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার অন্তত ৩টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। পাশাপাশি বাঘাইছড়ি ও খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলা সড়কের কয়েকটি স্থান রাস্তায় গাছ ও মাটি পড়ে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। সোমবার (২৭ মে) রাতে সড়কে গাছ পড়ে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

মঙ্গলবার (২৮ মে) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিরীন আক্তার।

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে টানা দুদিনের ভারী বৃষ্টিপাতে পাহাড় থেকে নেমে আসা ঢলে কাচালং নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে বাঘাইছড়ি উপজেলার মধ্যমপাড়া, মাস্টারপাড়া লাইল্যাঘোনা গোামে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এতে প্রায় ৫ থেকে ৭ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি মারিশ্যা-বাঘাইছড়ি সড়কের ৪ কিলোমিটার, ৮ কিলোমিটার এবং ১২ কিলোমিটার নামক স্থানে গাছ ও পাহাড়ের মাটি পড়ে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

অন্যদিকে দীঘিনালা সাজেক সড়কের কবাখালি এলাকায় পাহাড়ি ঢলের পানিতে সড়ক তলিয়ে গিয়ে যানচলাচল বন্ধ থাকার খবর পাওয়া গেছে।

বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিরীন আক্তার জানান, মোবাইল নেটওয়ার্ক দুর্বল থাকায় সার্বিক পরিস্থিতির খবর জানাতে বেগ পেতে হচ্ছে। পাহাড়ি ঢলে উপজেলার কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। বৃষ্টি এখন কমেছে। যদি বৃষ্টি বাড়ে আরো গ্রাম প্লাবিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বাঘাইছড়ি-দীঘিনালা সড়কের কিছু অংশে গাছ পড়ে আপাতত সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে, তবে যোগাযোগ স্বাভাবিক করতে কাজ করছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

এদিকে মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে শুরু হওয়া ঝড়ো হাওয়ার কারণে রাঙ্গামাটিতে বিদ্যুৎ, ইন্টারনেট ও মোবাইল সংযোগ দুর্বল হয়ে পড়েছে।

রাঙ্গামাটি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের সিনিয়র অবজারভার ক্যা চিনু মারমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রাঙ্গামাটিতে ১৮০মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রাঙ্গামাটিতে গতকালের মত ভারী বৃষ্টি না হলেও বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকতে পারে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন