রাজস্থলীতে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা পাচ্ছেন “বীরনিবাস”

fec-image

স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী ও জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ত্রিশ হাজার অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাকে একতলা পাকা ঘর তৈরি করে দেওয়ার উদ্যােগ নিয়েছে সরকার।

রাঙামাটি জেলাধীন রাজস্থলী উপজেলার ২ জন অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামে বীর নিবাস বাসস্থান নির্মাণের জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। তার মধ্যে একটি নিবাস নির্মাণের বরাদ্দ এসেছে বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শান্তনু কুমার দাশ জানান।

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে অসচ্ছলবীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন নির্মাণ" প্রকল্পের আওতায় ২০২১-২২ অর্থ বছরে প্রথম পর্যায়ে বরাদ্দ অনুযায়ী দুইটি সরকারি আবাসন নির্মাণ করবে উপজেলা প্রশাসন। এর আগে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর নীতিমালা ও প্রজ্ঞাপন নির্দেশিকা অনুযায়ী "অসচ্ছল/ ভূমিহীন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন বরাদ্দ" সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির সভায় ২ জন অসচ্ছল / ভূমিহীন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামের তালিকা চুড়ান্ত করে তাদের নামে বাসস্থান বরাদ্দের জন্য অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আবাসন বরাদ্দ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার একটি তালিকা তৈরি করে জেলা প্রশাসকের নিকট প্রেরণ করেন। প্রেরিত তালিকা অনুযায়ী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামে "বীর নিবাস" নামে আবাসন নির্মাণ বরাদ্দ প্রথম পর্যায়ে ২টি বীর নিবাস আসার নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শান্তনু কুমার দাশ। রাজস্থলীতে বীর নিবাস প্রাপ্তরা হলেন, ১নং ঘিলাছড়ি ইউনিয়নের মৃত আবুল কাসেমের স্ত্রী ফাতেমা বেগম, ও বাঙালহালিয়া ইউনিয়নের রুহুল আমিন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম জানান, বীর নিবাস নির্মাণের জন্য পরির্দশন ও যাচাই-বাছাই শেষে ১ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামে বরাদ্দ পাওয়া গেছে। প্রতিটি বাসস্থান নির্মাণে ১৩ লাখ ৪৩ হাজার ৬১৮ টাকা বরাদ্ধ করা হয়েছে। এর মধ্যে ভ্যাট৩% আয়কর সাড়ে ৭‰ মোট সাড়ে ১০% বাদে প্রতিটি বাসস্থান নির্মাণে নিট ব্যয় হবে ১২ লাখ ২ হাজার ৫৩৮ টাকা।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + 12 =

আরও পড়ুন