রাজস্থলীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা

fec-image

জাতির পিতার জন্ম না হলে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম হতো না বলে মন্তব্য করেছেন রাঙ্গামাটি সংসদ সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার। তিনি বলেন, জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমাদের সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। তার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হলেই বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবে।  তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা যদি বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ আরও উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হতো। ১৫ আগস্ট অত্যান্ত শোকার্ত, বেদনার্ত ও কলঙ্কের কালিমায় কুলষিত ইতিহাসের এক ভয়ঙ্কর দিন। যা বাঙ্গালীর হ্নদয়ে শোক আর কষ্টের দীর্ঘশ্বাস হয়ে দিনটি ফিরে আসে। সমগ্র জাতি গভীর শোক শ্রদ্ধায় জাতির শ্রেষ্ঠ  সন্তানকে স্বরণ করে।

মঙ্গলবার  (১৬ আগস্ট)  সকালে জাতীয় শোক দিবসে ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবসহ ১৫ ই আগস্টের সকল শহিদের স্বরণে  রাজস্থলী উপজেলা পরিষদের হল রুমে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাজস্থলী  উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ২ নং গাইন্দ্যা ইউপি চেয়ারম্যান পুচিংমং মারমা  এর সঞ্চালনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান  উবাচ মারমা এর  সভাপতিত্বে  অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য অংসুছাইন চৌধুরী, কাপ্তাই  উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মফিজুল হক,  জেলা শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ হানিফ, সাবেক জেলা পরিষদের সদস্য থোয়াইচিংমং মারমা,  জেলা পরিষদের সদস্য নিউচিং মারমা, রাজস্থলী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অংনুচিং মারমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উসচিন মারমা,  ১ নং ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবার্ট ত্রিপুরা,   চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আকতার হোসেন মিলনসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এসময় রাঙ্গামাটি আসনের  সংসদ সদস্য ও খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি আরো বলেন, খন্দকার মোস্তাকের মত লোক ছিল বলেই আজ আমাদের ১৫ই আগস্ট পালন করতে হচ্ছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে মোস্তাকের মত বেঈমান আর আমরা চাই না। আশা করি এখন আমাদের মাঝে আর বেঈমান নেই। আর দলের সাথে বেঈমানি করার মতো কেউ নেই এবং আওয়ামী লীগের প্রতিটা কর্মী ত্যাগী বলেই আমাদের কেউ ক্ষতি করতে পারেনা।

তিনি আরো বলেন, সারা বিশ্বে অর্থনৈতিক মন্দা চলছে। বিশ্ব অর্থনীতি মন্দার ফলে জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে। জনসাধারণ এর ভোগান্তির কথা চিন্তা করে ও জনদুর্ভোগ কমাতে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। আর প্রতি মাসেই সরকার জ্বালানি তেলের উপর ভর্তুকি দিচ্ছে। তাই গুজবে কান না দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্প বাস্তবায়নে মাননীয় শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান তিনি। পরে তিনি বাঙ্গালহালিয়া এক কর্মী সভায় যোগদান করেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আলোচনা সভা, জাতীয় শোক দিবস, রাজস্থলী
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × two =

আরও পড়ুন