রাজস্থলীতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জায়গা ছাড়তে ৭ দিনের আল্টিমেটাম

fec-image

রাঙামাটি জেলার রাজস্থলী উপজেলার ২ নম্বর গাইন্দ্যা ইউনিয়নের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এক একর ৯০ শতাংশ জায়গা অবৈধ দখলদারদের সরে যেতে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। আগামী বুধবারের মধ্যে নিজেরা সরে না গেলে যেকোন সময় অভিযান চালিয়ে তাদের উচ্ছেদ করা হবে বলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (৩১ আগস্ট) উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে উপস্থিত দখলকারীদের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, এর আগে ৩ থেকে ৪ বার তাদের মৌখিক ও লিখিত আল্টিমেটাম দেওয়া হলেও এখনো ৪ জন অবৈধ দখলদারের পরিবার হাসপাতালের জায়গা ছাড়েনি।

রাজস্থলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার শান্তনু কুমার দাশ ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রুইহলাঅং মারমা জানান, এক একর ৯০ শতাংশ পাহাড় ও সমতল জায়গা সুদীর্ঘকাল অবৈধভাবে দখল নিয়ে প্লট করে ঘরবাড়ি তৈরী করে সংঘবদ্ধ ভূমিদস্যু চক্র। এ চক্রটি নির্বিচারে পাহাড় ও সমতল ভূমি জীববৈচিত্র ধ্বংস করায় চরম ক্ষতির মুখে পড়েছে রাজস্থলী সদর হাসপাতালের ভূমি। এ লক্ষে প্রথম দফায় ৭ দিনের মধ্যে অবৈধ সেমি পাকা ঘর ছেড়ে দিতে অবৈধ দখলদার দের সময় বেধে দেয় উপজেলা প্রশাসন।

২০১৭ সালে উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলা প্রশাসন স্থানীয় হেডম্যান ও গণমাধ্যমকর্মী সহ উপজেলা সদর হ্সপাতালের পুরান জায়গা পরিদর্শন করে সেখানকার দখলকারীদের নোটিশের মাধ্যমে সরে যাওয়ার জন্য দ্বিতীয় দফায় সময় বেধে দেন। সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও তারা দখল ছাড়েনি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শান্তনু কুমার দাশ বলেন, `কয়েক বছর যাবত উপজেলা সদরের হাসপাতালের পুরাতন জায়গা প্রায় এক একর ৯০ শতাংশ জায়গা কিছু ভূমিদস্যু দখল করে আছে। ইতিপূর্বে কয়েকজনকে উচ্ছেদ করা হলেও ‌এখনো কয়েক জনের অবৈধ বসতি ও স্থাপনা রয়েছে। এ সব স্থাপনা সেমিপাকা ঘর সহ সব গুলো আমরা উচ্ছেদ করবো।'

তিনি আরো বলেন, `তবে তার আগে আরো কয়েক দিন সময় দেওয়া হয়েছে। এ সময়ের পর যেকোন সময়ে সবকটি স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালানো হবে। সরকারের নির্দেশে উপজেলা প্রশাসনের চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে সে খানে এখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে রয়েছে। প্রশাসন কোন অবস্থাতে অবৈধ বসতি রাখবে না। সরকারের উন্নয়ন বাস্তবায়ন করতে যা যা করার সবই করা হবে।'

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

sixteen − thirteen =

আরও পড়ুন