রামগড়ে দাম বৃদ্ধির গুজবে লবণ বিক্রির হিড়িক, ব্যবসায়িকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা

fec-image

খাগড়াছড়ির রামগড়েও দাম বাড়ার গুজবে লবণ বিক্রির হিড়িক পড়ে যায়। এদিকে, অধিক দামে বিক্রি করার অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালত এক ব্যবসায়িকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে লবণের দাম পেঁয়াজের মত লাগামহীনভাবে বেড়ে যাচ্ছে এমন গুজব ছড়িয়ে পড়ে পৌর শহরে। গুজবটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে লোকজন বাজারের মুদি দোকানগুলোতে ভিড় করতে শুরু করে। রীতিমত লবণ কেনার হিড়িক পড়ে যায় হাট বাজারে। সন্ধ্যায় রামগড় বাজারের মুদি দোকানগুলোতে চিকন লবণ শেষ হয়ে যায়।

এক দোকানী জানান, জনৈক ক্রেতা একাই ৩৫ কেজি লবণ কিনে নিয়ে গেছে। ২ কেজি হতে ৫/৬ কেজি করে কিনে নেয় বেশীর ভাগ ক্রেতা।

দোকানীরা জানান, তারা আগের দামেই লবণ বিক্রি করছেন। নতুন করে দাম তেমন বাড়েনি। এদিকে, দাম বৃদ্ধির গুজব ছড়িয়ে পড়লে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযানে নামেন মঙ্গলবার সন্ধ্যায়। রামগড় বাজার ও সোনাইপুল বাজারসহ বিভিন্ন হাটবাজারে এ অভিযান চালানো হয়।

পৌর সভার সোনাইপুল বাজারে দাম বাড়িয়ে লবণ বিক্রির অপরাধে এক ব্যবসায়িকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালত। নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট ও রামগড় উপজেলার সহকারী কমিশনার(ভূমি) মুহাম্মদ সরওয়ার উদ্দীন এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট জানান, সোনাইপুল বাজারের আলমগীর স্টোরের মালিক ২৫টি প্যাকেটের এক ব্যাগ লবণ কয়েকদিন আগে ২৪০ টাকায় বিক্রি করেন। কিন্তু আজ একই লবণ তিনি বিক্রি করেন ৩২০ টাকা দামে। অথচ লবনের দাম বাড়েনি। ব্যাগ প্রতি ৮০ টাকা বাড়িয়ে এ লবণ বিক্রির অপরাধে মালিককে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। আলমগীর স্টোরের মালিক ওমর ফারুকও এ কথা স্বীকার করেছেন।
ভ্রাম্যমান আদালত বাজারের ব্যবসায়িদের জনপ্রতি ১ কেজির বেশি লবণ বিক্রি না করতে সতর্ক করেছেন। এছাড়া গুজব ছড়ানোর সাথে জড়িতদের ব্যাপারে তথ্য দিতে জনগণকে অনুরোধ জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: জরিমানা, রামগড়ে, লবণ বিক্রির হিড়িক
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 2 =

আরও পড়ুন