রামগড়ে সর্প দংশনে গৃহবধূর মৃত্যু

fec-image

খাগড়াছড়ির রামগড়ে বিষধর সাপের কামড়ে এক গৃহবধূ মারা গেছে। এনিয়ে গত এক সপ্তাহে দর্প দংশনে দুই জনের মৃত্যু হল।

রবিবার (১৮ জুলাই) গভীর রাতে উপজেলার ১নং রামগড় ইউনিয়নের ছোট খেদা এলাকায় বিষধর সাপের কামড়ে ঊসাং মারমা (৩২) নামে এক গৃহবধূ মারা যান। তিনি খেদাছড়া গ্রামের ছালা মারমার স্ত্রী।

এর আগে গত মঙ্গলবার (১৩ জুলাই)রামগড়ের দক্ষিণ লামকুপাড়া এলাকায় তাহমিনা আক্তার নামের এক শিশু সর্প দংশনে মারা যায়।

রবিবার সর্প দংশনে মৃত্যুবরণকারি গৃহবধূ উসাং মারমার স্বামী ছালা মারমা জানান, রবিবার সন্ধ্যার পর উসাং গরু খুঁজতে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে গেলে তাকে সাপে কাটে । রাত ১২টার দিকে রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

গৃহবধূর স্বামী ছালা মারমা আরো জানান, তাকে চট্টগ্রামে নেয়ার জন্য এ্যাম্বুলেন্স ও প্রাইভেট গাড়ি ভাড়ার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। ফলে রাতেই তাকে বাধ্য হয়ে বাড়িতে নিয়ে আসতে হয়। রাত সাড়ে ৩টার দিকে বাসায় সে মৃত্যুবরণ করে।

রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ প্রতীক সেন জানান, হাসপাতালে সাপে কাটার রুগীর চিকিৎসার অ্যান্টিভেনাম ইনজেকশন না থাকায় ওই গৃহবধূকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছিল। তিনি আরও জানান, উপজেলা হাসপাতালে এই ইনজেকশন সরবরাহ করা হয় না।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 4 =

আরও পড়ুন