সাব স্টেশনে পুলিশ প্রহরা

রামগড়ে ৪ দিনে ৬৬ ঘন্টা বিদ্যুৎ নেই, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

fec-image

খাগড়াছড়ির রামগড়ে সরবরাহ লাইনে ত্রুটির কারণে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। গত চারদিনে ৬৬ ঘন্টা বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় আছে ভারতের সীমান্তবর্তী এ উপজেলা। দীর্ঘ সময় ধরে বিদ্যুৎ না থাকায় মানুষকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এদিকে, বিক্ষুব্দ মানুষ রবিবার (২৭ অক্টোবর) পৌর শহরে মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ায় পিডিবির রামগড় আবাসিক প্রকৌশলীর কার্যালয় ও সাব স্টেশনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জানা যায়, গত দুই সপ্তাহ থেকে রামগড়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট চরম আকার ধারণ করে। সর্বশেষ গত বৃহষ্পতিবার (২৪ অক্টোবর) সকাল ১০টার দিকে বিদ্যুৎ চলে যায়। আসে সন্ধ্যা ৭টার দিকে। ঐদিন রাত ২টায় পুনরায় চলে যায়। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ১০ মিনিটে এসে ৫মিনিট পর আবার চলে যায়। রাত ১০টায় এসে ১০ মিনিট পর চলে যায় এবং রাত ১০ টা ৫০ মিনিটে এসে ২টায় চলে যায়। ১২ ঘন্টা ২০ মিনিট পর শনিবার বেলা ২টা ২০ মিনিটে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু হয়। ঐদিন বিকাল ৫টায় আবার চলে যায়।

দীর্ঘ ২২ ঘন্টা ৩০ মিনিট বিদ্যুৎ বিহীন থাকার পর রবিবার (২৭ অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৩টায় সরবরাহ চালু করা হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (রবিবার বেলা সাড়ে ৪টা) ৪-৫ মিনিট পর পর বিদ্যুৎ আসা যাওয়ার মধ্যে ছিল।

বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ায় মানুষ চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। পৌরসভার পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। অফিস, ব্যাংকসহ ব্যবসা, বাণিজ্যে স্বাভাবিক কার্যক্রম অচল হয়ে পড়েছে। পানি সরবরাহ বন্ধ হওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ইনডোরের রোগীদের অবস্থা খুবই শোচনীয় হয়ে পড়েছে। এদিকে বিদ্যুৎ না থাকায় মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্কও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। ফলে টেলিফোনিক যোগাযোগ অচল অবস্থায় আছে।

এদিকে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের কারণে সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। রবিবার দুপুরে বিক্ষুব্দ মানষ পৌর শহরের পুলিশ বক্স চত্ত্বরে মানববন্ধন করেছে। বিক্ষুব্দ মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল সহকারে বিদ্যুৎ অফিস অভিমুখে যাওয়ার পথে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এ ঘটনার পরই পিডিবির রামগড় আবাসিক প্রকৌশলীর অফিস ও সাব স্টেশনে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

রামগড় থানার অফিসার ইনচার্জ তারেক মো: আব্দুল হান্নান বলেন, বিদ্যুৎ অফিস অভিমুখে যাওয়া বিক্ষোভকারীদের দ্রুত বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করার ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়ে তাদের ফেরৎ পাঠানো হয়।

তিনি বলেন, মানুষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সে কারণে বিদ্যুৎ অফিস ও সাব স্টেশনে পর্যাপ্ত পুলিশ র্ফোস মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে, বিদ্যুতের চরম বির্পযয় অবস্থার ব্যাপারে কথা বলতে পিডিবির রামগড়ের আবাসিক প্রকৌশলী মো. দেলোয়ার হোসেনের মুঠোফোনে অসংখ্যবার কল দিয়ে মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। রবিবার দুপুরে বিদ্যুৎ অফিসে গিয়েও একজন দারোয়ান ছাড়া কাউকে পাওয়া যায়নি।

পিডিবির খাগড়াছড়ির নির্বাহি প্রকৌশলী মো: কামাল উদ্দিন মুঠোফোনে বলেন, চট্টগ্রামের হাটহাজারি ও নাজিরহাট সাব স্টেশনের ব্রেকার খারাপ হওয়ায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। সেখানে ত্রুটি সারানোর কাজ চলছে।

তিনি বলেন, নাজিরহাট সাব স্টেশন থেকে প্রায় ৬৫ কিলোমিটার দীর্ঘ ৩৩ কেভিএ সঞ্চালন লাইনের মাধ্যমে রামগড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। দীর্ঘ দিনের পুরাতন এ লাইনটি এখন জরাজীর্ণ। একদিকে অধিক দূরত্ব এবং বনজঙ্গলের ভিতরে লাইনের অবস্থান হওয়ায় ত্রুটি দেখা দিলে তা নির্ণয় ও মেরামত করতে অনেক সময় লেগে যায়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 5 =

আরও পড়ুন