রামুতে জনি রাজসহ জোড়া হত্যার বিচার দাবিতে সংস্কৃতিকর্মীদের মানববন্ধন

fec-image

কক্সবাজারের ঈদগড়-ঈদগাঁহ সড়কে ডাকাতের হামলায় জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী জনি রাজ দেসহ বর্বরোচিত জোড়া হত্যার ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে রামুতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) বিকাল তিনটায় চৌমুহনী স্টেশনে রামুর সংস্কৃতিকর্মীদের উদ্যোগে আয়োজিত এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেন-বীর মুক্তিযোদ্ধা, শিল্পী, শিক্ষক, সাংবাদিক, রাজনৈতিক ও বিভিন্ন পেশাজীবি নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন-কন্ঠশিল্পী জনি রাজ দে’র মৃত্যু মানে একটি নক্ষত্রের মৃত্যু। কেবল জনি রাজ দে নয়, এ ঘটনায় আহত সিএনজি যাত্রী মো. কালুও কয়েকদিন যন্ত্রণায় কাতরাতে কাতরাতে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। আইনশৃংখলা বাহিনীর নিরাপত্তার অভাবে সড়কে দিনের বেলায় এভাবে একজন দেশখ্যাত তরুন শিল্পীসহ ২ ব্যক্তির মৃত্যু সবার কাছে বেদনার এবং দুঃখজনক। আর কত মৃত্যু হলে এ সড়কে নিরাপত্তা জোরদার হবে? এ প্রশ্ন এখন পুরো দেশবাসীর।

তারা আরও বলেন, যারা মানুষের নিরাপত্তা দেয়ার জন্য জনগণের টাকায় নিয়োজিত তাদের ভূমিকা এ ঘটনায় প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। কারণ লোমহর্ষক এ ঘটনার ১ সপ্তাহ পার হলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এখনো জড়িত কাউকে গ্রেফতার কিংবা এ ঘটনার কোন রহস্য জনির হতভাগ্য পরিবার কিংবা শোকাহত মানুষকে জানাতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই এদেশের আপামর জনসাধারণের মতো শিল্পীসমাজও এখন হতাশ, বাকরুদ্ধ।

সমাবেশে বক্তারা বহুল আলোচিত ঈদগড়-ঈদগাঁহ সড়ককে হত্যাকারি ডাকাত-সন্ত্রাসীদের রাহুমুক্ত করতে অবিলম্বে চিরুনী অভিযান পরিচালনা এবং যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সড়কের পাশে সেনাবাহিনী, বিজিবি বা পুলিশের ক্যাম্প স্থাপনের জোর দাবি জানান।

সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) রামু উপজেলা সভাপতি এবং রামু প্রতিনিধিত্বশীল নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন সমস্বর এর নির্বাহী পরিচালক মাস্টার মোহাম্মদ আলমের সভাপতিত্বে এবং সাংবাদিক সোয়েব সাঈদের সঞ্চালনায় এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর আহমদ, কবি এম সুলতান আহমদ মনিরী, কক্সবাজার রবীন্দ্র সম্মেলন পরিষদের সহ সভাপতি অধ্যাপক প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন, বাংলাদেশ বেতার কক্সবাজার কেন্দ্রের সংগীত প্রযোজক বশিরুল ইসলাম, রামু সরকারি কলেজের শিক্ষক কন্ঠশিল্পী মানসী বড়ুয়া, রামু খিজারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মফিজুল ইসলাম, মনসুর আলী সিকদার আইডিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবদুল হাশেম, বাঁকখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল আমিন, রামু প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি খালেদ শহীদ, নাট্যকার সুশান্ত পাল বাচ্চু, রামু উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি তপন মল্লিক, রামু সর্বজনীন কেন্দ্রীয় কালী মন্দিরের পুরোহিত সুবীর ব্রাক্ষ্মন চৌধুরীসহ সংস্কৃতি কর্মীরা।

উল্লেখ্য গত ৮ অক্টোবর ঈদগাঁহ-ঈদগড় সড়কে ডাকাতরা সিএনজি যাত্রী জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী জনি রাজ দেকে কুপিয়ে হত্যা করে। ওই ঘটনায় আহত কালু নামের আরো এক ব্যক্তি হাসপাতালে প্রাণ হারান। শিল্পী জনি রাজ দে রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের চরপাড়া এলাকার তপন দে’র ছেলে এবং ঈদগাঁহ ফরিদ আহমদ কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three + two =

আরও পড়ুন