রামুতে প্রেমিকের ছুরিকাঘাতে প্রেমিকা খুন, ঘাতক প্রেমিকের আত্মহত্যার চেষ্টা

fec-image

রামুতে এক প্রেমিকা স্কুল ছাত্রীকে জবাই করে হত্যার পর প্রেমিক ঘাতকের আত্মহত্যার চেষ্টায় ক্ষতবিক্ষত। আহত ওই ঘাতককে মুমুর্ষাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের গোয়ালিয়াপালং টাইংগ্যাকাটা এলাকায় লোমহর্ষক এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, গ্রামের মো. হোছাইনের পুত্র স্থানীয় গোয়ালিয়াপালং উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র মুফিজুর রহমান (১৬) একই গ্রামের মোঃ হোসেনের বাড়িতে যায়।

এ সময় ঘাতক মুফিজ প্রেমঘটিত কারণে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মোঃ হোসেনের কন্যা ও স্থানীয় কিন্ডার গার্টেন স্কুলের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী খুরশিদা বেগমকে (১৪) গলায় ছুরিকাঘাত করলে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।

পরে ঘাতক মুফিজ পার্শ্ববর্তী তার নিজের বাড়িতে এসে নিজের গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরি দিয়ে আঘাতের মাধ্যমে আত্নহত্যার চেষ্টা চালায়। তখন পরিবারের লোকজন তাকে মুমুর্ষাবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

তার অবস্থা এখনো শংকামুক্ত নয় বলে জানা গেছে। খুনিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ জানান, হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত মুফিজুর রহমান (১৬) ও নিহত খুরশিদা (হতাহত দুজন) সম্পর্কে মামাতো-ফুফাতো ভাই-বোন।

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল খায়ের জানান, হত্যার কারণ উদঘাটনে পুলিশ কাজ করছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 4 =

আরও পড়ুন