রামুতে রোজার প্রথমদিনে ব্যাপক লোডশেড়িং

বিদ্যুত
সোয়েব সাঈদ, রামু প্রতিনিধি:
রামু উপজেলায় পবিত্র মাহে রমজানের প্রথম দিনে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে রোজাদারগণ দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন। প্রথম দিনে রামু বিদ্যুৎ সরবরাহ অফিসের আওতাধিন এলাকায় সেহরী, জুমার নামাজ এবং তারাবী নামাজ চলাকালে দফা দফায় লোডশেড়িং করা হয়।

রামু চেরাংঘাটা জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর জানিয়েছেন, বৃহষ্পতিবার দিবাগত রাতে সেহেরীর সময় দীর্ঘক্ষণ লোডশেড়িং করা হয়। এতে গৃহস্থালি কাজ ও সেহেরীর খাবার তৈরীতে নারীরা দুর্ভোগের শিকার হন। রোজার প্রথম দিনে পবিত্র জুমার নামাজ চলাকালে ৩ দফা লোডশেড়িং করা হয়। এছাড়া শুক্রবার রাতে তারাবীর নামাজ চলাকালে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ঘটনা ঘটে।

ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের মন্ডলপাড়ার বাসিন্দা শিক্ষক মোহাম্মদ কামাল জানিয়েছেন, পবিত্র মাহে রমজানের প্রথম দিনটি রোজাদারদের কাছে অধিক গুরুত্বপূর্ণ। এ দিনে পুরো মাসের প্রস্তুতি শুরু করেন ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা। কিন্তু এবার প্রথম দিনে সেহরী, জুমার নামাজ এবং তারাবী নামাজ চলাকালে দফা দফায় লোডশেড়িং ধর্মপ্রাণ মুসল্লীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

মুসলিম ধর্ম প্রধান দেশে মুসলিমদের গুরুত্বপূর্ণ ইবাদতের মাস শুরুর দিনে গুরুত্বপূর্ণ মূহুর্তগুলোতে বিদ্যুতের এমন লোডশেড়িং অনাকাংখিত ও দূঃখজনক। রমজানের অবশিষ্ট দিনগুলোতে যেন এ ধরনের লোডশেড়িং না হয়। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

রামু বিদ্যুৎ সরবরাহ অফিসের আবাসিক প্রকৌশলী মো. হেলাল উদ্দিন রোজার প্রথম দিনে লোডশেড়িংয়ের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ওই দিন প্রচুর লোডশেড়িং ছিলো। তবে সেটা তাদের ইচ্ছাকৃত ছিলো না। জেলা থেকেই এ লোডশেড়িং করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × 3 =

আরও পড়ুন