রামুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমসহ ৬ জন কারাগারে

fec-image

রামুর রশিদনগরে ছাত্রলীগ-স্বেচ্ছাসেবকলীগের ৩ নেতাকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত চেয়ারম্যান শাহ আলমসহ ৬ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। শাহ আলম ছাড়া আটক অপর আসামীরা হলেন-লাল মিয়ার ছেলে ফয়সাল, মৃত কালু মিয়ার ছেলে রমজান আলী, আবু শামা প্রকাশ তোফাইল আহমদের ছেলে আবুল কাশেম, মৃত ছালেহ আহমদের ছেলে জাফর আলম এবং মোজাফ্ফর আহমদের ছেলে মো. শাহজাহান।

রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করলে বিজ্ঞ বিচারিক হাকিম রাজিব কুমার বিশ্বাস তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য গত ২৩ জানুয়ারি রামুর রশিদনগর ইউনিয়নের পানিরছড়া মামুন মিয়ার বাজারে সন্ত্রাসী হামলায় গুরতর আহত হন রশিদনগর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি নজিবুল আলম, সহ সভাপতি সাইফুল ইসলাম এবং ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মিজানুল করিম। এ ঘটনায় আহত নজিবুল আলমের ভাই শাহ আলম বাদি হয়ে ২৪ জানুয়ারি রামু থানায় মামলা (নং ২৭) দায়ের করেন। মামলায় রশিদনগর ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমসহ ১৮ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

বাদীপক্ষের আইনজীবী এডভোকেট মো. সাজ্জাদুল করিম জানিয়েছেন- চেয়ারম্যান শাহ আলমসহ ১১ জন ঘটনার পর উচ্চ আদালতে জামিন আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত তাদের জামিন না দিয়ে ১৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে ওই ১১ জন রবিবার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন জানান। এসময় চেয়ারম্যান শাহ আলমসহ ৬ জনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর এবং অপর ৫ জনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন বিজ্ঞ বিচারিক হাকিম।

রক্তাক্ত এ হামলার পর থেকে এলাকায় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অন্যান্য অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে হামলাকারি চেয়ারম্যান শাহ আলম ও তার সহযোগিদের গ্রেফতারের দাবিতে কয়েক দফা বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + twenty =

আরও পড়ুন