রামুর দুর্গম ব্যাঙডেবা গ্রামের বাসিন্দারা পেলেন করোনার টিকা

fec-image

কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলার জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের দূর্গম ব্যাংডেবা গ্রামে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়ার নির্দেশনায় বুধবার ব্যাঙডেবা গ্রামবাসীকে টিকা প্রদান করা হয়।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) ভোরে স্বাস্থ্য বিভাগের একটি টিম গ্রামের উদ্দেশে রওনা হয়। অতি দূর্গম পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়ে বেলা গড়াতেই স্বাস্থ্য বিভাগের টিম ওই গ্রামে পৌঁছলে এলাকাবাসীর মাঝে দেখা যায় খুশির ঝিলিক।

টিকা প্রদানের ব্যতিক্রমী এ কার্যক্রমে সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রিপন চৌধুরী, সিনিয়র স্টাফ নার্স শিউলি রাণী দে, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক অরিন্দ্র বড়ুয়া, স্বাস্থ্য সহকারী স্বপন পাল, স্বাস্থ্য সহকারী নজরুল ইসলাম।

ব্যাংডেবা গ্রামের বাসিন্দা হেডম্যান আলী আহমদ জানান, গ্রামের বাসিন্দারা অধিকাংশ দরিদ্র। গাড়ি ভাড়া আর দূর্গম পথ পাড়ি দিয়ে টিকা নেয়া এখানকার নারী-পুরুষের জন্য ছিলো কষ্টসাধ্য। এখন স্বাস্থ্য বিভাগের টিকা পেয়ে গ্রামবাসী আনন্দিত। এজন্য তিনি স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া জানান, ব্যাঙডেবা গ্রামটি কাছাকাছি অবস্থানে হলেও অতি দুর্গম হওয়ায় প্রায় ৩০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে সেখানে যেতে হয়। দূরত্ব বেশি হওয়ায় গ্রামের দরিদ্র বাসিন্দারা টিকা নিতে যাতে ভোগান্তির শিকার না হন, সেজন্যই গ্রামে গিয়ে বাসিন্দাদের টিকা দেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, বুধবার গ্রামের ১২১ জন নারী-পুরুষকে কোভিড-১৯ এর টিকা দেয়া হয়েছে। যা অব্যাহত থাকবে। মহৎ এ উদ্যোগ সফলভাবে সম্পন্ন করায় তিনি রামু স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে নীরবে কাজ করে যাওয়া রামু স্বাস্থ্য বিভাগের সৈনিকদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 1 =

আরও পড়ুন