রোহিঙ্গা ইস্যুতে ফের ডিগবাজি ভারতের

fec-image

চলতি সপ্তাহের শুরুতেই ঢাকার পক্ষ থেকে নয়াদিল্লিকে অনুরোধ করা হয়েছিল, বাংলাদেশে পালিয়ে আসা ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে মিয়ানমার যাতে ফিরিয়ে নেয়, তার জন্য ভারতের পক্ষ থেকে কূটনৈতিকভাবে চাপ সৃষ্টি করতে। ভারত এ বিষয়ে বাংলাদেশকে আশ্বাসও দিয়েছিল। কিন্তু শুক্রবার ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষবর্ধন স্রিংলা ও মিয়ানমারের পররাষ্ট্রসচিব ইউ সো হান-এর বৈঠকে বিষয়টি তুলতে দেখা গেল না নয়াদিল্লিকে।

সম্প্রতি ভারত ও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের (জেসিসি) বৈঠকের পর যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করে বলা হয়েছিল, জোর করে তাড়িয়ে দেয়া রোহিঙ্গাদের দ্রুত, নিরাপদ ও স্থায়ী প্রত্যাবর্তনের গুরুত্বের দিকটি দুই মন্ত্রীই তুলে ধরেছেন। বৈঠকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করকে বলেছিলেন, ঢাকা আশা করছে, জাতিসংঘেরর নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে ভারত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমারে ফেরানোর প্রশ্নে অর্থপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। কিন্তু বাংলাদেশকে আশ্বাস দিয়েও রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে সাউথ ব্লককে আবারও ডিগবাজি খেতে দেখা গেল ভারত ও মিয়ানমারের পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের বৈঠকে। এর আগেও রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের অনুরোধ বারবার অবজ্ঞা করেছে দিল্লী।

জানা গেছে, রাখাইন প্রদেশে উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি নিয়ে ভারত ও মিয়ানমারের দুই পররাষ্ট্রসচিবের কথা হয়েছে। জাপানের সঙ্গে ভারতের সহযোগিতায় সেখানে ১৫টি স্কুল তৈরির কথাও হয়েছে। কিন্তু বৈঠকের পরে যে বিবৃতিটি নয়াদিল্লিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে, তাতে বাংলাদেশের কক্সবাজারের শিবির থেকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়া নিয়ে কোনও কথা বলা হয়নি। এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, ‘রাখাইন প্রদেশের উন্নয়নমূলক কর্মসূচি নিয়ে কথা হয়েছে।’ সূত্র: এবিপি।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ডিগবাজি, ভারতের, রোহিঙ্গা ইস্যুতে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + nine =

আরও পড়ুন