রোহিঙ্গা নাগরিকের পেটে মিললো ৩৫০০ পিস ইয়াবা

fec-image

পাকস্থলীতে মাদক নিয়ে পাচারের সময় রোহিঙ্গা নাগরিকসহ দুজনকে আটক করেছে র‍্যাব-১১। সোমবার (৬ জুন) রাতে কুমিল্লা জেলার সদর দক্ষিণ থানার আমতলী বিশ্বরোড এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়েছে। এ সময় দুজনের কাছ থেকে চার হাজার ৬৯০ পিস অক্ষত ও ৩৫ গ্রাম ভাঙা ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৭ জুুন) বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন র‍্যাব-১১ কুমিল্লার কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন।

আটককৃতরা হলেন- কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পান বাজার ব্লক-বি-১৩ এর বাসিন্দা আবুল ফয়েজ (৭৩) ও মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানার পুরাচক গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে মো. জাহান শরিফ (৫২)।

মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন জানান, অভিযানে সন্দেহভাজন দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ ও তল্লাশি করা হলে জাহান শরিফের কাছ থেকে এক হাজার ১৯০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয় এবং রোহিঙ্গা নাগরিক আবুল ফয়েজকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার পেটে ইয়াবা আছে বলে জানান। পরে একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে আবুল ফয়েজকে এক্স-রে করলে তার পেটে ইয়াবার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। চিকিৎসকের পরামর্শে বিশেষ পদ্ধতিতে তার পেটের ভেতর থেকে তিন হাজার ৫০০ পিস অক্ষত ও ৩৫ গ্রাম ভাঙা ইয়াবা বের করা হয়।

গ্রেফতার রোহিঙ্গা নাগরিক জানান, ইতিপূর্বে বেশ কয়েকবার টেকনাফ থেকে পেটে করে ইয়াবা পরিবহন করে কুমিল্লা, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা ও মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করেছেন। বয়স বেশি হওয়ায় তাকে কেউ সন্দেহ করে না। সুযোগটি কাজে লাগিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অভিনব কায়দায় পেটে করে ইয়াবা পাচার করে আসছেন।

র‍্যাব কর্মকর্তা সাকিব জানান, তাদের বিষয়ে কুমিল্লার কোতোয়ালি মডেল থানায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইয়াবা, রোহিঙ্গা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 1 =

আরও পড়ুন