রোহিঙ্গা সম্পর্কে বিশ্বকে বিভ্রান্ত করেছেন সু চি, তার পদত্যাগ করা উচিত বললেন ইয়াং লি

fec-image

মিয়ানমারে মানবাধিকার প্রশ্নে জাতিসংঘের র‌্যাপোটিয়ার ইয়াং লি বলেছেন, রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে অং সাং সূ চি তার দেশে রাষ্ট্রবিহীন মুসলিম সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে নির্যাতন সম্পর্কে ভয়ানকভাবে ভুল তথ্য দিয়ে বিশ্বকে বিভ্রান্ত করেছেন। নোবেল বিজয়ী সূ চি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে হাত পা গুটিয়ে বসে আছেন। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন’এর সাথে এক বৈঠকে ইয়াং লি একথা বলেন। লি বলেন, সূ চি সামরিক নিষ্পেষণ থেকে মুক্ত হলেও তাকে আর গণতন্ত্রের কর্মী বলা যায় না। এএফপি/ডেইলি সাবা

ইয়াং লি বলেন, দশকের পর দশক ধরে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন চলছে। এ নিয়ে সূ চির সত্য কথা বলা উচিত নইলে তার পদত্যাগ করা উচিত। সময় এসেছে তার কথা বলার এবং রোহিঙ্গাদের সম্পর্কে বাক্য ব্যবহারের। রোহিঙ্গারা যাতে নিজেদের স্বকীয়তা বজায় রাখে সে সুযোগ তার নিশ্চিত করা উচিত। ইয়াং লি’র মিয়ানমারে সফরে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মিয়ানমার সফরে যাচ্ছেন আগামী সপ্তাহে।

ঠিক তার আগেই ইয়াং লি দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের কাছে আবেদন জানান, রোহিঙ্গাদের ওপর যে নির্যাতন চালাচ্ছে দেশটির সরকার সে কারণে মুনের উচিত গণতন্ত্রের একজন কর্মী হিসেবে নিরবে অবদান রাখা। লি বলেন, প্রেসিডেন্ট মুনের মানবাধিকার আইনজীবী হিসেবে ঐতিহ্য রয়েছে কিন্তু মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের পক্ষে তিনি কথা বলবেন কি না এ নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।

লি আরও বলেন, অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার বলে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন সত্ত্বেও নিশ্চুপ থাকা লজ্জার ব্যাপার। কারণ এ শতাব্দীতে রোহিঙ্গাদের ওপর যে হত্যাযজ্ঞ চলছে তা সবচেয়ে ভয়ংকর।

সূত্র: আমাদের সময়.কম

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইয়াং লি, রোহিঙ্গা সম্পর্কে বিশ্বকে বিভ্রান্ত করেছেন সু চি
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 4 =

আরও পড়ুন