রোয়াংছড়ি-রুমা অভ্যান্তরীণ সড়কের কমবে দূরত্ব, হবে কৃষি ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন

fec-image

দিন দিন দৃশ্যমান হয়ে উঠছে বান্দরবানের রোয়াংছড়ি ও রুমা উপজেলার অভ্যান্তরীন ২০কি.মি সড়ক। ইতোমধ্যেই ২০শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। ২০২১-২২ অর্থবছরের মধ্যে সমাপ্ত হবে প্রকল্পটি। অভ্যান্তরীণ সড়কটির কাজ শেষ হলে দুই উপজেলার দূরত্ব কমবে। হবে মানুষের কৃষি ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে কাজটি চলছে। ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে এই প্রকল্প নির্মাণে ব্যায় হচ্ছে ৪৮ কোটি টাকা। প্রকল্পে থাকছে মাটি কেটে রাস্তা তৈরি, কার্পেটিং, ড্রেন, কালভার্ট নির্মাণ।

সরেজমিনে রোয়াংছড়ি উপজেলার বাসিন্দা থোয়াইনু অং মার্মা বলেন- সড়কটি নির্মিত হলে দুই উপজেলার বাসিন্দাদের মধ্যে অর্থনৈতিক যোগাযোগ বাড়বে। আশপাশের অনাবাদী জমি চাষাবাদের আওতায় আসবে।

রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান উহ্লা মং মারমা জানান- আগে রুমা হয়ে বান্দরবান সদরে যেতে সময় লাগতো দু-থেকে আড়াই ঘন্টা। কিন্ত চলমান কাজটি সম্পন্ন হলে এক ঘন্টার মধ্যেই জেলা সদরে যাতায়াত করা যাবে। এই সড়কটি আমাদের দীর্ঘ দিনের দাবি ছিল।

রোয়াংছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বিশ্ব নাথ তংচঙ্গ্যা জানান- রোয়াংছড়ি-রুমা সড়কটি একটি যুগান্তকারী প্রকল্প। পার্বত্য উন্নয়ন বোর্ডের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি আলোকিত হয়েছে।

এদিকে সম্প্রতি নির্মাণ কাজটি পরিদর্শন করেছেন পরিকল্পনা কমিশনের যুগ্ম প্রধান সাইদুজ্জামান, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোখলেছুর রহমানসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকতারা।

এই প্রসঙ্গে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রকল্প পরিচালক (পিডি) আবদুল আজিজ জানান-রোয়াংছড়ি -রুমা অভ্যন্তরীণ সড়কটির নির্মাণ কাজটি এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে ২০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরে কাজটি শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপির আন্তরিক প্রচেষ্টায় কাজটি এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 12 =

আরও পড়ুন