লংগদুতে পিসিজেএসএস’র সশস্ত্র গ্রুপের হামলায় ইউপিডিএফ’র ২ সন্ত্রাসী নিহত

fec-image

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (পিসিজেএসএস) সশস্ত্র গ্রুপের হামলায় প্রসীত খীসার নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) সশস্ত্র ২ সন্ত্রাসী সদস্য নিহত হয়েছে।

শনিবার (১৮ মে) সকালে লংগদু’র বড় হাড়িকাবার ভালেদি হাট এলাকায় এই হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়।

নিহতরা হলেন, বিদ্যাধন তিলক চাকমা (৪৫) ও ধন্যমনি চাকমা (৩৫)। নিহত ইউপিডিএফ সদস্য বিদ্যাধন তিলন চাকমা লংগদুর কাট্টলীর কুকিছড়া এলাকার সময় মনি চাকমার ছেলে এবং সমর্থক ধন্যমনি চাকমা একই উপজেলার বড় হাড়িকাবার ধুধুকছড়া এলাকার লেংগ্যা চাকমার ছেলে।

রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মারুফ আহম্মেদ জানিয়েছেন নিহতের বিয়ষটি অবহিত হওয়ার পর মরদেহ উদ্ধারে ঘটনাস্থলে পুলিশের একটি টিম রওয়ানা দিয়েছে।

এদিকে, ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)-এর রাঙামাটি জেলা ইউনিটের সংগঠক সচল চাকমা নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সকাল সাড়ে ৮টার সময় লংগদুর বড়হাড়িকাবার ভালেদি ঘাট এর পার্শ্ববর্তী স্থানে সন্তু গ্রুপের ৭ জনের একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী এসে সেখানে সাংগঠনিক কাজে নিয়োজিত ইউপিডিএফ কর্মীদের উপর হামলা চালায়। এ হামলায় ঘটনাস্থলে ইউপিডিএফ সদস্য বিদ্যাধন চাকমা ওরফে তিলক (৪৫) ও সমর্থক ধন্যমনি চাকমা (৩৫) নিহত হন।

ইউপিডিএফ এর পক্ষ থেকে পাঠানো বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, এই হত্যাকাণ্ডে নেতৃত্বে ছিলো পোয়া চাকমা ওরফে আপন (৩২)। সে বড় হাড়িকাবার পাশে কুট্টছড়ি গ্রামের লক্ষ্মী মনি চাকমার ছেলে। পোয়া চাকমা সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জেএসএস এর সক্রিয় সন্ত্রাসী।

বিবৃতিতে সচল চাকমা অবিলম্বে লংগদুতে ইউপিডিএফ কর্মী, সমর্থককে হত্যাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার এবং সন্ত্রাসীদের মদদদাতা সন্তু লারমাকে গ্রেফতারপূর্বক আঞ্চলিক পরিষদ থেকে অপসারণ করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানানো হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: ইউপিডিএফ, নিহত, পিসিজেএসএস
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন