লক্ষ্মীছড়িতে ভোটার নিবন্ধন ফরমের সংকট

ছবি তোলার কাজ চলছে, ২৮মে বর্মাছড়ি ইউনিয়নে

tytyuy78

স্টাফ রিপোর্টার,  লক্ষ্ণীছড়ি:

খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্ণীছড়ি উপজেলায় ভোটার তালিকার হালনাগাদ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ভোটার নিবন্ধন শেষে এখন চলছে ছবি তোলার কাজ। ২৭ মে মঙ্গলবার ১নং লক্ষ্ণীছড়ি ইউনিয়নের নিবন্ধনকৃত ভোটারদেন ছবি তোলার কাজ চলেছে।

৯টি ওয়ার্ডে নিবন্ধনকৃত ৪০৫ জনের মধ্যে দিন শেষে সন্ধায় প্রায় ৩’শ জনের ছবি তোলা সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা গেছে। যান্ত্রিক কিছু ত্রুটির কারণে ছবি তোলর কাজ কিছুটা ধীরগতি লক্ষ্য করা গেছে। ২৮ মে বুধবার ৩নং বর্মাছড়ি ইউনিয়নে ছবি তোলার মধ্য দিয়ে শেষ হবে লক্ষ্ণীছড়ি উপজেলার ভোটার তালিকার হালনাগাদ কাজ। তবে বর্ষা মৌসুম দুর্গম পায়ে হাঁটার রাস্তা বর্মাছড়ি ইউনিয়নে কাজের নির্ধারিত দিনে বৃষ্টি হলে ছবি তোলার কাজ ব্যহত হতে পারে বলে জানা গেছে।

গত ২৬ মে ২নং দুল্যাতলী ইউনিয়নে ছবি তোলার কাজ সম্পন্ন হয়। এদিকে নির্বাচন কমিশনের বেধে দেয়া ৫% (শতকরা পাঁচ ভাগ) হিসেবে ধরে লক্ষ্ণীছড়ি উপজেলায় ১৫হাজার ৯’শ ৫টি ভোটারের বিপরীতে ৯’শ রেজিষ্ট্রেশন ফরম তথ্য সরবরাহকারির কাছে ছাড়া হয়েছে।

কোন কোন ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা বেশি হওয়ায় তথ্য সংগ্রকারি রেজিষ্ট্রেশন ফরম না থাকায় অনেক ব্যক্তিকে ভোটারের নিবন্ধন তালিকায় অর্ন্তভুক্ত করাতে পারেন নি। লক্ষ্ণীছড়ি ইউনিয়নের ছবি তোলার সময় ভোটার নিবন্ধন ফরম পূরণ করেন নি এমন অনেকেই অভিযোগ করতে দেখা গেছে।

অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত লক্ষ্ণীছড়ি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো: শাখাওয়াত হোসেন ফরম সংকটের কথা স্বীকার করে বলেন, বাদ পড়া ব্যক্তিদের কথা তিনি শুনেছেন বিষয়টি দেখবেন বলে সাংবাদিকদের জানান। ২৪ মে নিবন্ধনের শেষ দিন হলেও যথা সময়ে তথ্য সংগ্রকারির কাছে গিয়েছেন এমন একজন সদর ওয়ার্ডের মো: মহসিন জানান, আমি কয়েকবার গিয়েছে তথ্যসংগ্রহকারির কাছে সে বলেছে ফরম নেই, ছবি তোলর দিন আসতে বলেছে। লক্ষ্ণীছড়ি ইউনিয়নের ১নং সদর ওয়ার্ডের তথ্য সংগ্রকারি শিক্ষক ললিত কুমার চাকমা জানান, ফরম সংকট হয়েছে। আমি সাথে সাথে বিষয়টি উপজেলা নির্বাচন অফিসকে জানিয়েছি।

বেশ কয়েকজন উপজাতীয় ভোটারও ফরম না থাকার কারণে নিবন্ধন হতে পারেন নি বলে সুপারভাইজার প্রধান শিক্ষক বিজয় চাকমা জানান। বিষয়টি সুরাহা না হলে এলাকার প্রায় অর্ধশত ব্যক্তি বয়স হওয়া সত্ত্বেও দেশের নাগরিক হওয়ার সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে। তাই কারো অবহেলায় যাতে একজন ব্যক্তিও নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয় এমনটিই আশাবাদী সচেতন মহল। 

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one × 5 =

আরও পড়ুন