শীতবস্ত্র পেয়ে প্রধানমন্ত্রী ও পার্বত্যমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা শীতার্তদের

fec-image

অপ্রত্যাশিত শীতে কাঁপছিল ৬০ থেকে ৮০ বছরের অর্ধশতাধিক বয়স্ক নর-নারী। বয়স্ক ভাতা পেলেও পর্যাপ্ত শীতবস্ত্র ছিলনা। থানচি সদর ইউনিয়ন পরিষদ হতে কম্বল শীতবস্ত্র পেয়ে প্রধানমন্ত্রী ও পার্বত্যমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করলো থানচি হেডম্যান পাড়ার বাসিন্দা প্রায় ৮০ বছরে বৃদ্ধা ক্যইসাপ্রু মারমা, ক্যইহ্লাঅং মারমা, গংপি ম্রোসহ অর্ধশতাধিক নারী পুরুষ।

তারা বলেন বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে স্বাধীনতা হতোনা। স্বাধীনতা হয়েছে বলে এবং বঙ্গবন্ধু সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনা করতে পেয়েছে বলে আমরা সঠিক সময়ে সঠিকভাবে শীতবস্ত্র পেয়েছি। অপ্রত্যাশিত শীতে কাপছিল শীতার্তরা। সঠিক সময় সঠিকভাবে বয়স্ক ভাতা যেমন পেয়েছি ঠিক তেমনি শীত বস্ত্রও পেয়েছি। সুতারাং আমাদের দোয়া প্রার্থনা পাওয়ার যোগ্যতা রাখছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পার্বত্যমন্ত্রী বীর বাহাদুর (উশৈসিং)।

শনিবার (২৮ ডিসেম্বর ) সকাল ১০টা থানচি উপজেলা সদরে ৩ নং থানচি ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে পরিষদ প্রাঙ্গনে প্রায় ৫শত হত দরিদ্র শীতার্ত বয়স্কদের কম্বল বিতরণ করা হয়। সে সময় উপস্থিত অতিথিদের সামনে উপরোক্ত কথা বলেছিলেন তারা।

শীতার্ত হত দরিদ্রদের কম্বল বিতরণের সময় থানচি উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী নুমেপ্রু মারমা, সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাংসার ম্রো , মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও ইউপি মেম্বার ডলিচিং মারমা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেত্রী ও ইউপি মেম্বার নুচিংপ্রু মারমা, ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ইউপি মেম্বার চাইসিংউ মারমা, শ্রমিক লীগের সম্পাদক ও ইউপি মেম্বার উসাইঅং মারমা প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: পার্বত্যমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী, বীর বাহাদুর
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × three =

আরও পড়ুন