সর্বোত্তম চাকমাসহ ১৫ ইউপিডিএফ(প্রসীত) নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:
খাগড়াছড়ির পানছড়িতে জেএসএস(এমএন) গ্রুপের কর্মী রনি ত্রিপুরা (৩০) হত্যার ঘটনায় পানছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমাসহ ১৫ ইউপিডিএফ(প্রসীত) গ্রুপের নেতাকর্মীকে আসামী করে মামলা হয়েছে।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে রনির ত্রিপুরার মা লতাতি ত্রিপুরা বাদী হয়ে পানছড়ি থানায় মামলাটি করেন।

মামলার অপর আসামীদের মধ্যে রয়েছে, পানছড়ি উপজেলার লোগাং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রতুত্তর চাকমা, পানছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সঞ্জয় চাকমা, শান্তি জীবন চাকমা, কয়েন চাকমা উল্লেখযোগ্য।

আসামীর সবাই প্রসীত বিকাশ খীসার নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) নেতাকর্মী-সমর্থক বলে জানা গেছে।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় পানছড়ি উপজেলা সদরে সুকতারা নামক একটি বোর্ডিংয়ের সামনে রনি ত্রিপুরাকে লক্ষ করে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

পানছড়ি থানার ওসি (তদন্ত) মো. দুলাল হোসেন জানান, দাহক্রিয়া শেষ করে শনিবার নিহতের মা মামলাটি করেছেন। মামলার তদন্ত চলছে।

নিহত রনিকে নিজেকে এমএন লারমা নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি কর্মী। সংগঠনের পক্ষে এ হত্যাকান্ডের জন্য প্রসীত বিকাশ খীসার ইউপিডিএফকে দায়ী করা হয়। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপিডিএফ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

8 − one =

আরও পড়ুন