সহকারী জজ হলেন মহেশখালীর রিয়াজ

fec-image

বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সহকারী জজ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মহেশখালী উপজেলার হোয়ানকের রিয়াজ উদ্দিন। ১১তম জুডিশিয়াল সার্ভিস ক্যাডারে উত্তীর্ণ হয়ে তিনি সহকারী জজ হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন। প্রথম কর্মস্থল হিসেবে ময়মনসিংহের জেলা জজ আদালতে তাকে পদায়ন করা হয়েছে।

জানা যায়, রিয়াজউদ্দিন হোয়ানক ইউনিয়নের বড়ছড়া গ্রামের জাফর আলমের পুত্র। তিনি ২০০৯ সালে কনক ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাস করেন। ২০১১ সালে চট্টগ্রাম কলেজ থেকে এইসএসসি পাস করেন। ২০১১-১২ সেশনে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালে ভর্তি হয়ে আইন বিষয়ে অনার্স এবং ২০১৫-১৬ সেশনে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন।

রিয়াজ উদ্দীন ১১তম বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষা অংশ নেন এবং সব পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে লিখিত উত্তীর্ণ হন। ফলে চূড়ান্তভাবে সদ্য প্রকাশিত গেজেটে তাকে সহকারী জজ হিসেবে নিয়োগ প্রদান করে বিচার বিভাগ। প্রথম কর্মস্থল হিসেবে তাকে ময়মনসিংহের জেলা জজ আদালতে পদায়ন করা হয়েছে।

এদিকে রিয়াজউদ্দিন সহকারী জজ হওয়ায় তার গ্রাম বডছড়াসহ পুরো হোয়ানকে খুশির আমেজ বিরাজ করছে। এলাকার একজন ছেলে জজ হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় এলাকার সর্বস্তরের মানুষ দারুণ খুশি হয়েছেন। লোকজন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে তাকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন।

সহকারী জজ নিয়োগ পেয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় রিয়াজউদ্দিন বলেন, আইন বিষয়ে পড়ালেখা করা ছাত্র-ছাত্রীদের প্রথম স্বপ্ন থাকে জুডিশিয়াল সার্ভিসে নিয়োগ পাওয়া। আমিও সেই স্বপ্ন ধারণ করে এগিয়ে এসেছি। জুডিশিয়াল সার্ভিসে নিয়োগ পাওয়ার জন্য কঠোর অধ্যাবসায় এবং পড়াশোনা করতে হয়েছে। আল্লাহর অসীম রহমত এবং আমার মা-বাবা এবং শুভাকাঙ্খীদের দোয়ায় আমি সবগুলো পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সরকারি জজ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছি। এইজন্য আমি মহান আল্লাহর কাছে অশেষ শুকরিয়া আদায় করছি।

তিনি আরও বলেন, আমি আমার পেশাগত দায়িত্ব অত্যন্ত স্বচ্ছতা, সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করব। এভাবে দায়িত্ব পালন করে আমি সাধারণ বিচারপ্রার্থীদের বিচার পাওয়া শতভাগ নিশ্চিত করব।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: জুডিশিয়াল সার্ভিস ক্যাডার, মাদ্রাসা, সহকারী জজ
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 2 =

আরও পড়ুন