সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা আদা-জিরাবাহী জাহাজ

fec-image

বঙ্গোপসাগরে ডুবে গেছে মিয়ানমার থেকে টেকনাফ স্থলবন্দরে আসার পথে আবারও পণ্যবাহী একটি কার্গো জাহাজ। শনিবার (২ অক্টোবর) সকালে সেন্টমার্টিনের নাইক্ষ্যংদিয়া এলাকায় জাহাজটি ডুবে যায়। এতে ব্যবসায়ীর কোটি টাকা লোকসান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বন্দর ব্যবসায়ীরা জানান, মিয়ানমার থেকে আসার পথে সেন্টমার্টিন মাঝ সাগরে পণ্যবাহী একটি কার্গো জাহাজ ডুবে যায়। সেখানে তিন হাজার ৬৭৫ বস্তা আদা, ২২০ বস্তা জিরাসহ সুপারিও ছিল। এগুলো টেকনাফ স্থল শুল্ক স্টেশনের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মেসার্স জিন্নাহ অ্যান্ড ব্রাদার্স মালিকানাধীন ব্যবসায়ী শওকত আলী চৌধুরীর কাছে আসছিল বলে জানা গেছে।

টেকনাফ স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এহতেশামুল হক বাহাদুর বলেন, ‘শনিবার বন্দরে আসার পথে মালবাহী একটি কার্গো জাহাজ ডুবে যাওয়ার খবর শুনেছি। এতে কোটি টাকার পণ্য রয়েছে। ফলে ব্যবসায়ী ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।’

টেকনাফ স্থলবন্দরের ইউনাইটেড ল্যান্ডপোর্ট ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘সাগরে ডুবে যাওয়া জাহাজে প্রায় চার হাজার বস্তা পণ্য ছিল।’

এদিকে, গত ১৬ সেপ্টেম্বর সেন্টমার্টিনের নাইক্ষ্যংদিয়া এলাকায় মিয়ানমার থেকে আসা আরেকটি মালবাহী জাহাজ সাগরে ডুবে যায়। এতে ব্যবসায়ীদের কোটি কোটি টাকা লোকসান গুনতে হয়েছে। ওই জাহাজে কফি, আচার, কাপড় ও কসমেটিকসসহ বিভিন্ন পণ্য ছিল। এগুলো টেকনাফ স্থলবন্দর ব্যবসায়ী ফারুক, সাদ্দাম, শামসু, সেলিম ও মাসুমের ছিল বলে জানা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 5 =

আরও পড়ুন