সাজেকে ভীষণ ভাল লেগেছে: লুইপা

fec-image

সাজেক গিয়ে অনেকের মতোই মুগ্ধ হয়েছেন কণ্ঠশিল্পী জিনিয়া জাফরিন লুইপা। গত বছর সেখানে বেড়াতে যাওয়ার স্মৃতির ভাগ দিতে গিয়ে তিনি জানান, সুযোগ পেলে আবারও তিনি উঠতে চান কাংলাক পাহাড়ে। সম্প্রতি পূর্ণ উদ্যমে কনসার্টে গাইতে শুরু করেছেন লুইপা। নিজের ইউটিউব চ্যানেল ‘লুইপা অফিশিয়াল’-এর জন্য একক মৌলিক গান প্রকাশেরও প্রস্তুতি নিচ্ছেন এই শিল্পী। ভালোবাসা দিবসে সংগীতচিত্রসহ গানটি প্রকাশ করবেন তিনি।

২০১০ সালে চ্যানেল আই সেরা কণ্ঠ প্রতিযোগিতার সেরা চার-এ ছিলেন লুইপা। সংগীতকে নিয়েছেন ক্যারিয়ার হিসেবে। হারানো দিনের গানের পাশাপাশি তিনি গাইছেন মৌলিক গানও। কনসার্টে গাইতে অনুরোধ পান চলচ্চিত্রের গানের। জানালেন, রাজধানীর বেশ কয়েকটি জায়গায় আয়োজিত ঘরোয়া কয়েকটি অনুষ্ঠানে গাইবেন তিনি। কনসার্টে গাইতে গিয়ে তাঁর কি মনে হয় যে মহামারি চলছে? লুইপা বলেন, ‘লকডাউন শিথিল হওয়ার ঠিক পর যে অনুষ্ঠানে গাইলাম, দেখলাম শ্রোতারা সবাই মাস্ক পরে আছেন, একটা করে আসন ফাঁকা রেখে বসেছেন। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের অনুষ্ঠানেও সে রকম দেখলাম। বাদবাকি জায়গাগুলোতে খুব একটা করোনাভীতি দেখিনি। আসলে মানুষ একটু হাঁপ ছেড়ে বাঁচতেই ঘর থেকে বের হচ্ছেন। সেখানে কি আর এত কিছু মেনে চলার কথা মাথায় থাকে?’

সিনেমা দেখতে ও ঘুরে বেড়াতে ভালোবাসেন এই তরুণ শিল্পী। সম্প্রতি বেশ কিছু সিনেমা দেখেছেন তিনি। জানালেন, নেটফ্লিক্সে দেখা ‘বুলবুল’-এর আবহসংগীত ভীষণ ভালো লেগেছে, আর ভালো লেগেছে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার ‘দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক’ ছবিটি। এরই মধ্যে সিনেমা হলে গিয়ে উপভোগ করেছেন ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ ছবিটি। সিনেমা দেখার মতো বেড়াতেও ভালোবাসেন লুইপা। তিনি বলেন, ‘শিল্পী হওয়ার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে শো করতে গেলে ঘোরাটাও হয়ে যায়। গত বছর একটা জায়গায় শো করতে গিয়েছিলাম। সেখান থেকে মিউজিশিয়ানসহ পুরো টিম মিলে সাজেক যাই। জায়গাটা খুব সুন্দর। করোনাকালে মানুষ বিদেশ যেতে পারেনি, কিন্তু দেশটা ঘুরেছে। আমার মনে হয়েছে, করোনা না এলে জানতাম না, দেশটা এত সুন্দর। সাজেক আমার এত ভালো লেগেছে যে বলে বোঝাতে পারব না। আমার আরও একবার সাজেক যাওয়ার ইচ্ছা আছে।’

ভালোবাসা দিবসে লুইপার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হচ্ছে ‘মন ভালো হয়ে যায়’ শিরোনামে এই গানের একটা ভিডিও। এ ছাড়া একটা শর্টফিল্মের জন্যও ‘ময়না ছলাৎ ছলাৎ’ শিরোনামে একটি গান করেছেন তিনি। লুইপা জানান, তাঁর গাওয়া গানটি আগে প্রকাশিত হবে, তারপর শর্টফিল্ম। নিজের চ্যানেলের জন্য ভিডিও নির্মাণ খরচসাপেক্ষ কাজ। এটা কীভাবে করছেন? জানতে চাইলে লুইপা বলেন, ‘স্টেজ শো করে যে সম্মানী পেয়েছি, সেখান থেকে অল্প অল্প করে জমিয়ে কাজটা করছি। নিজের জন্য কিছু করার কাজে খরচের কথা ভাবতে ইচ্ছা করে না।’

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

14 − 2 =

আরও পড়ুন