সীমান্ত দিয়ে আর কোনো অবৈধ অনুপ্রবেশ করতে দেওয়া হবে না

fec-image

মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সীমান্তবর্তী এলাকায় চলছে উত্তেজনা। যার প্রভাব এসে পড়েছে বাংলাদেশ সীমান্তে। এই অস্থিরতার মাঝে টেকনাফের জলসীমা পরিদর্শন করেন কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক রিয়ার অ্যাডমিরাল মীর এরশাদ আলী।

এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতময় পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের জলসীমায় কোস্ট গার্ডের টহল জোরদার রয়েছে। সীমান্তে আর কোনো অনুপ্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। রোহিঙ্গা কিংবা রাখাইনের যে কোনো অনুপ্রবেশ রোধে কোস্ট গার্ডের জনবল এবং জলযান বৃদ্ধি করা হয়েছে। রাখাইনের সংঘাত সংঘর্ষ বাংলাদেশের জন্য কোনো হুমকি মনে করে না।

রবিবার (২১ এপ্রিল) সকালে কক্সবাজারের টেকনাফ ও সেন্টমার্টিন্স দ্বীপের জলসীমা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক রিয়ার অ্যাডমিরাল মীর এরশাদ আলী এসব কথা বলেন।

ব্রিফিংয়ে তিনি আরো জানান, রাখাইনে চলমান সংঘাতের কারণে গোলাগুলি সংঘর্ষ বিস্ফোরণের শব্দ এপারে চলে আসছে। এ কারণে সীমান্ত এলাকার বাসিন্দাদের উদ্বেগ উৎকণ্ঠা রয়েছে। এ ব্যাপারে কোস্ট গার্ডসহ বিজিবি নৌবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সীমান্ত সতর্ক নজরদারিতে রয়েছে।

তিনি জানান, সীমান্তে অনুপ্রবেশ রোধে মাদক পাচার ও চোরাচালান প্রতিরোধে কোস্ট গার্ডের সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে। এদিকে কোচ গেটের মহাপরিচালক জলসীমা পরিদর্শনকালেই টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপের নাফ নদীর নাইক্ষ্যংদিয়া সীমান্তে মিয়ানমারের ওপার থেকে ছোঁড়া গুলিতে দুই জেলে গুলিবিদ্ধ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও পড়ুন