স্টার্টআপদের নিয়ে আইসিটি বিভাগের ৪ দিনব্যাপী অনলাইন সেশন

fec-image

ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে ৪ দিনব্যাপী স্টার্টআপদের মেন্টরিং সেশনের উদ্বোধন করল তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের আওতায় “উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (iDEA)”

মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) মেন্টরিংয়ের মাধ্যমে স্টার্টআপ অ্যাকসেলেরেশন বিষয়ে “আইডিয়েশন থেকে ফান্ডিং” নামক এই মেনটরিং প্রোগ্রামটি প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এর নির্বাহী পরিচালক পার্থ প্রতিম দেব। অনলাইন অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন iDEA প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সৈয়দ মজিবুল হক।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিনিয়র সচিব বলেন, স্টার্টআপদের জন্য যথোপযুক্তভাবে গাইডেন্স প্রয়োজন রয়েছে। সরকার সবসময় স্কিল ডেভেলপমেন্ট, প্রশিক্ষণ ইত্যাদি বিষয়ে নিয়মিতভাবে উৎসাহিত করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। আমাদের যে কোন প্রশিক্ষণেই ধৈর্য্যশীল ও মনোযোগী হওয়া উচিৎ। বাংলাদেশের প্রথম সারির ও প্রতিষ্ঠিত স্টার্টআপদের ফাউন্ডার ও সিইওগণ রিসোর্স পারসন হিসেবে “আইডিয়েশন থেকে ফান্ডিং” নামক এই মেন্টরিং প্রোগ্রামটির সেশনগুলো পরিচালনা করবেন।

তাই, এই প্রশিক্ষণ সেশনগুলো থেকে স্টার্টআপগণ কিভাবে ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্মগুলো আহরণ করবেন, কিভাবে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা করবেন, তাদের রেভিনিউ মডেল কিভাবে ডিজাইন করবেন এবং বিজনেস প্ল্যান কিভাবে প্রস্তুত করবেন ইত্যাদি বিষয়ে বিস্তারিত জ্ঞান লাভ করবেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিসিসি এর নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব। তিনি বলেন, স্টার্টআপদের শুধু প্রোডাক্ট তৈরি করলেই চলবে না, একই সাথে সেই প্রোডাক্টটিকে যথোপযুক্তভাবে মার্কেটিং ও স্কেলেবল করতে হবে। আমরা চাই একটি উদ্ভাবনী ইকোসিস্টেম তৈরি করতে যেখানে এই প্রশিক্ষণসমূহ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

সভাপতির বক্তব্যে iDEA প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সৈয়দ মজিবুল হক বলেন, স্টার্টআপদের জন্য মেন্টরিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন যে iDEA প্রকল্পের মাধ্যমে বিনামূল্যে প্রদানকৃত এই মেন্টরিং প্রোগ্রামটিতে স্টার্টআপদের জন্য মার্কেটিং, প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট, ফাইন্যান্সসহ নানা বিষয় অন্তর্ভুক্ত থাকবে যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই কার্যক্রমের মাধ্যমে থেকে অংশগ্রহণকারী স্টার্টআপগণ বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে উপকৃত হবেন বলে তিনি আশাবাদী।

৪ দিনব্যাপী এই মেন্টরিং প্রোগ্রামে অংশ নিচ্ছে প্রায় ৪৪ টি স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে অংশ নিচ্ছে ৭০ জনেরও বেশি প্রশিক্ষণার্থী। অনলাইনে অনুষ্ঠিত এই মেনটরিং প্রোগ্রামে মোট ১৪টি সেশন আয়োজিত হবে।

এই আয়োজনের ১ম দিনের বিষয় গুলো ছিল- মেন্টরিংয়ের মেথোডলজি ও পরিচিতি পর্ব, স্টার্টআপ বিজনেস ভিশন এবং লিগ্যাল ও মেধাস্বত্ব বিষয়ক ৩টি টপিক। ২য় দিনের (২ সেপ্টেম্বর ) আলোচনার বিষয় গুলো হবে- কাস্টমার ডেভেলপমেন্ট, জনবল নিয়োগ ও টিম ডেভেলপমেন্ট এবং প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট।

৩য় দিনের (৩ সেপ্টেম্বর) মেন্টরিং সেশনের বিষয় গুলো হবে- প্রোডাক্ট স্কেলআপ ও মার্কেট, ব্র্যান্ডিং ও ডিজাইন, স্টার্টআপ গ্রোথ এবং ডিপ টেক কোম্পানি।

৪র্থ দিনের (৫ সেপ্টেম্বর) অর্থাৎ শেষ দিনের সেশনটির বিষয় গুলো হবে- ফাইন্যান্সিয়াল মডেলস ও ভ্যালুয়েশন, রেভিনিউ, ইকুইটি ও ফান্ডিং এবং ফাউন্ডার শো-কেস।

৪ দিনব্যাপী এই মেন্টরিং প্রোগ্রামে মেন্টর হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ১৪ জন অভিজ্ঞ মেন্টর। সকলের জন্য এই পুরো আয়োজনটি সকাল ১০ টা থেকে “স্টার্টআপ বাংলাদেশ” এর অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে (https://www.facebook.com/LetsStartupBD/ ) লাইভ সম্প্রচার করা হয় এবং ২য় থেকে ৪র্থ দিনের প্রতিটি সেশনও একইভাবে সম্প্রচার করা হবে।

লজারুস রোবটিক্স, পত্র, ইকো-ডায়নামিক্স, হেলো টাস্ক, প্যারেন্টস কেয়ার, ডিজিটাল ভাঙ্গাড়িওয়ালা, মনা হেলথ-সহ iDEA প্রকল্পের প্রায় ৪০ টি স্টার্টআপ এই সেশনটিতে অংশ নেয়।

আয়োজনটি সঞ্চালনা করেন iDEA প্রকল্পের পরামর্শক সিনিয়র পরামর্শক আর এইচ এম আলাওল কবির।

এছাড়া, অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন iDEA প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক (উপসচিব) কাজী হোসনে আরা, বেটার স্টোরিজ লিমিটেডের চীফ স্টোরি টেলার মিনহাজ আনোয়ার, অন্যান্য মেন্টরগণ, প্রকল্পের পরামর্শকগণসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − ten =

আরও পড়ুন