স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না যেসব বিখ্যাত মানুষ

fec-image

দিনের বেশিরভাগ সময় কাটে সবার স্মার্টফোনের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থেকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটু পর পর না ঢুকলে যেন ভালোই লাগে না।

তবে এখনো এমনও অনেকে আছেন, যারা স্মার্টফোন থেকে যোজন যোজন দূরে। সাধারণ মানুষ তো বটেই এই তালিকায় আছেন বিখ্যাত তারকারাও। রঙিন দুনিয়ায় যাদের বসবাস তারা কি না স্মার্টফোন থেকে দূরে। একথা সহজে হজম করতে পারবেন না অনেকেই। তবে অবিশ্বাস্য হলেও সত্যিই এমন বিখ্যাত কয়েকজন তারকা আছেন, যারা স্মার্টফোন থেকে নিজেদের এখনো দূরে রেখেছেন।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কারা রয়েছেন এই তালিকায়-

জাস্টিন বিবার
বিশ্ব তারুণ্যের পপ আইকন জাস্টিন বিবার। সারাবিশ্বের তরুণ সমাজ উন্মাদ হয়ে আছেন এই পপ তারকার কণ্ঠের জাদুতে। তবে জানেন কি? এই তারকা ব্যবহার করেন না স্মার্টফোন। এই বিষয়ে জাস্টিন স্পষ্ট ভাষায় জানান, একটা সময় তিনি সেলফোন ব্যবহার করলেও এখন সেটির কোনো অস্তিত্ব নেই। কারণ এটি ব্যালেন্স করা তার জন্য কষ্টকর। তবে তার জরুরি কাজগুলো সারতে সহযোগিতা নেন ট্যাবের।

শাইলিন উডলিন
নিজেকে কিছুতে বেঁধে রাখতে চান না। আর এজন্যই স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না দ্যা বলটিন অ্যাওয়ার্ড স্টার খ্যাত তারকা শাইলিন উডলিন। তাছাড়া বাস্তবিক সামাজিক যোগাযোগের প্রতি তার বাড়তি ভালোবাসা বাড়াতে চান। এজন্য ডিজিটাল সামাজিকতা ভার্চুয়াল জগতে নিজেকে ব্যস্ত রাখেন না।

এড সিরা
এই তালিকায় আছে বিখ্যাত মার্কিন গায়ক এড সিরাও। তিনি নিজেই নিজের ফোন ছুড়ে ফেলে দিয়েছিলেন। টানা এক বছর থেকেছিলেন যথাসম্ভব অফরিডে। তবে তার সঙ্গে যোগাযোগের জন্য ই-মেইলের ব্যবস্থা ছিল।

জেসিকা পার্কার
ইন্ডাস্ট্রি খ্যাত সারা জেসিকা পার্কার বেশ ফ্যাশন সচেতন। তবে ফ্যাশনের সঙ্গী হিসেবে সেলফোন কখনোই স্থান পায়নি তার কাছে।

টম ক্রুজ
হলিউডের অন্যতম হ্যান্ডসাম টম ক্রুজও আছেন এই তালিকায়। ষাট ছুঁই ছুঁই এই চির তরুণের কখনো সেলফোন রাখার প্রয়োজন পরেনি। অবশ্যই ফোন রাখার বিশেষ কোনো কারণও নেই তার আশেপাশে এতো লোকজন যে ওরাই টমের যাবতীয় সকল কাজ ম্যানেজ করে।

শ্বাশত চট্টোপাধ্যায়
ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্র ও টেলিভিশনের উজ্জ্বল মুখ শ্বাশত চট্টোপাধ্যায়। এই গুণী তারকাকে অসংখ্য চরিত্রে দেখা গেছে মোবাইল হাতে অথচ বাস্তবে তিনি পুরোটাই বিপরীত। যোগাযোগের জন্য তার একমাত্র মাধ্যম একটি ল্যান্ডফোন। সেটাও বাড়িতে।

এলটন জন
বিশ্বখ্যাত পপ তারকা স্যার এলটন জন একই পথের পথিক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিয়মিত উপস্থিত দেখা গেলেও তিনি কোনো সেলফোন ব্যবহার করেননা। তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার আইডিগুলো পরিচালনা করেন তার স্বামী ডেভিট ফার্নিশ ও তার ব্যক্তিগত স্টাফরা।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − 3 =

আরও পড়ুন