হোয়াইক্যংয়ে চিহ্নিত দুর্বৃত্তদের আগুনে গাড়ি পুড়ে ছাই

fec-image

টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কানজরপাড়ায় একদল চিহ্নিত দুর্বৃত্তদের আগুনে একটি নোয়া গাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে গাড়ির মালিকের পুরো পরিবার। ৭ নভেম্বর ভোর রাতে উত্তর কান্জরপাড়া গ্রামে গাড়ির মালিক আবুল হাসেম কোম্পানীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটায় চিহ্নিত দুর্বত্তরা। এ ব্যাপারে টেকনাফ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।

ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির মালিক ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একদল চিহ্নিত দুর্বৃত্ত হত্যার উদ্দেশ্যে গাড়ির মালিকের বাড়িতে ঢুকে দরজা জানালা ভাংচুর করতে থাকে। বিদ্যুতের আলোতে দুর্বত্তদের হাতে অস্ত্রশস্ত্র দেখা গেলে প্রাণের ভয়ে পরিবারের কেউ বাড়ি থেকে বের হয়নি। এক পর্যায়ে তারা উত্তেজিত হয়ে গ্যারেজে রাখা নোয়া গাড়িতে (নোয়াখালী চ ১১-০০১৪) আগুন জ্বালিয়ে দেয়। আগুনের লেলিহান শিখা দেখে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে চিহ্নিত দুর্বত্তরা পালিয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির মালিক ও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হাসেম বলেন, ১৬ লাখ টাকা দামের নতুন গাড়িটি পুড়ি দেয়া হয়। এর আগেও তারা আমাকে ও আমার ছেলে জসিম উদ্দিনকে হত্যা করতে চেয়েছে। জসিম উদ্দিন প্রাণে বেঁচে গেলেও গুরুতর আহত হয়। এরই প্রেক্ষিতে আব্দুল করিম গংদের বিরুদ্ধে টেকনাফ থানায় মামলা দায়ের করা হয়। যার মামলা নং ৬৯/২০২০।

মামলা করায় তারা নিয়মিত হুমকি ধমকি দিয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় এমন নির্দয় ঘটনা ঘটিয়েছে। আব্দুল করিম, আবছার উদ্দিন ও কুতুব উদ্দিন সহ অপরাপর ১২ জনকে অভিযুক্ত করে টেকনাফ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন গাড়ির মালিক আবুল হাসেম।

এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে হোয়াইক্যং পুলিশ ফাড়ীর ইনচার্জ এসআই নুরে আলমের কাছে। তিনি জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, উপরোক্ত ব্যক্তিদের সাথে আবুল কাসেমের দীর্ঘ দিনের জমি সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 15 =

আরও পড়ুন