২০২৩ সালে চাঁদে অবতরণ করবে তুরস্ক: এরদোয়ান

fec-image

চাঁদে রকেট পাঠাচ্ছে তুরস্ক। প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান জানিয়েছেন, ২০২৩ সালে চাঁদে অবতরণ করবে তার দেশ। মঙ্গলবার জাতীয় মহাকাশ কর্মসূচি এবং তুর্কি স্পেস এজেন্সি-র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেওয়া ভাষণে এমন পরিকল্পনার কথা জানান তিনি।

এদিন আগামী ১০ বছরের জন্য বেশকিছু পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেন এরদোয়ান। এর মধ্যে চাঁদে রকেট পাঠানো ছাড়াও মহাকাশ বন্দর তৈরির মতো বিষয়গুলোও রয়েছে।

এরদোয়ান বলেন, ‘২০২৩ সালের শেষের দিকে আন্তর্জাতিক সহযোগিতার ভিত্তিতে আমারা হাইব্রিড রকেট পাঠাবো। আল্লাহ তাআলা চাইলে আমরা চাঁদে যাচ্ছি।’ তুর্কি প্রজাতন্ত্রের ১০০ বছর পূর্তিও হচ্ছে ওই সময়।

এরদোয়ান মহাকাশ বন্দর গড়ে তুলতে চান। তিনি চান, তুরস্ক যেন রকেট প্রযুক্তির ক্ষেত্রে অগ্রণী দেশে পরিণত হয়। তিনি বলেছেন, ‘আমি আশা করবো, আমাদের প্রয়াস সফল হবে এবং মহাকাশ গবেষণায় এগিয়ে থাকা দেশের তালিকায় তুরস্কও ঠাঁই পাবে।’

২০১৮ সালে তুরস্কের মহাকাশ এজেন্সি তৈরি হয়। সে সময় আর্থিক অনটন চলছিল। তার মধ্যে এই এজেন্সির গঠন নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়তে হয় সরকারকে। কিন্তু এই প্রকল্পের সমর্থকদের দাবি, এর ফলে তুরস্কের মহাকাশ গবেষকরা উপকৃত হবেন এবং মেধা পাচার বন্ধ হবে।

মহাকাশ অভিযানে কত অর্থ খরচ হবে, তা জানা যায়নি। তবে বিষয়টি নিয়ে এরদোয়ান স্পেসএক্সের প্রধান এলন মাস্কের সঙ্গে কথা বলেছেন। তুর্কি কোম্পানিগুলিকে মহাকাশ অভিযানে সহায়তার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। স্পেস এক্সের সহযোগিতায় যুক্তরাষ্ট্র থেকে তুরস্কের উপগ্রহ টার্কস্যাট ৫এ মহাকাশে গেছে।

এরদোয়ান বলেছেন, ‘আমাদের পা থাকবে মাটিতে, চোখ আকাশে। আমাদের শিকড় থাকবে বিশ্বে, আমাদের ডালপালা থাকবে মহাকাশে।’

সূত্র: ডিডব্লিউ, ডেইলি সাবাহ।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 − three =

আরও পড়ুন