২০ দিনের মাথায় ‘পাল্টা’ রাঙামাটি প্রেসক্লাব’র আত্মপ্রকাশ

fec-image

দীর্ঘ দুই দশকের ‘অচলায়তন’ ভেঙে রাঙামাটি প্রেসক্লাবে নতুন সাত সদস্য অন্তর্ভুক্তকরণের ২০ দিনের মাথায় পাল্টা প্রেসক্লাব গঠন করেছে জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের একাংশ। পূর্বের রাঙামাটি প্রেসক্লাবকে ‘কতিপয় ব্যক্তির প্রতিনিধিত্বকারী’ ও ‘মূলধারায় পেশাদার সাংবাদিকদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই’ দাবি করে পাল্টা প্রেসক্লাব গঠন করা হয়।

নবগঠিত ‘রাঙামাটি প্রেসক্লাব’র কার্যকরী কমিটিতে দৈনিক যুগান্তরের রাঙামাটি প্রতিনিধি সুশীল প্রসাদ চাকমাকে সভাপতি, বাংলাভিশনের রাঙামাটি প্রতিনিধি নন্দন দেবনাথকে সাধারণ সম্পাদক এবং চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের রাঙামাটি প্রতিনিধি জিয়াউল হককে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট রাঙামাটি প্রেসক্লাবের পাল্টা কমিটির আত্মপ্রকাশ করা হয়। একইসাথে ৩৮ সদস্যের সাধারণ পরিষদও গঠন করা হয়েছে।

আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে নবগঠিত রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সুশীল প্রসাদ চাকমা লিখিত বক্তব্যে বলেছেন, ‘জেলায় কর্মরত ৩৮ জন পেশাদার সাংবাদিকদের নিয়ে ২৫ জনের কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ প্রেসক্লাবে দেশের মূলধারার গণমাধ্যম ১৮টি টেলিভিশন চ্যানেল, বাংলাদেশ বেতার ও ৩৯টি জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় কর্মরত সাংবাদিক ও সম্পাদকরা রয়েছেন।’

লিখিত বক্তব্যে সুশীল প্রসাদ চাকমা অভিযোগ করেন, ‘দৈনিক পূর্বকোণের রাঙামাটি প্রতিনিধি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল ও দৈনিক সংগ্রামের রাঙামাটি প্রতিনিধি আনোয়ার আল হকের নেতৃত্বে একটি প্রেসক্লাব কমিটি ছিল। প্রকৃতপক্ষে সে প্রতিষ্ঠানটি নামে প্রেসক্লাব হলেও এটি সাংবাদিকদের প্রতিনিধিত্ব করত না। তারা কতিপয় ব্যক্তির প্রতিনিধিত্ব করে। তথাগঠিত প্রেসক্লাবের সাথে মূলধারার গণমাধ্যমগুলোর রাঙামাটিতে কর্মরত প্রকৃত পেশাদার সাংবাদিকদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।’

সুশীল বলেন, ‘নবগঠিত রাঙামাটি প্রেসক্লাবটি দেশের মূলধারার গণমাধ্যম ও রাঙামাটির পেশাদার সাংবাদিকদের প্রতিনিধিত্ব করবে।’

এদিকে পাল্টা ‘রাঙামাটি প্রেসক্লাব’ গঠন প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রাঙামাটি প্রেসক্লাব সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল ‘আপাতত কোনো মন্তব্য’ করতে রাজি হননি।

কার্যকরী কমিটি যারা আছেন:

নতুন আত্মপ্রকাশ করা রাঙামাটি প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটিতে সহ-সভাপতি হিসেবে যমুনা টিভির রাঙামাটি প্রতিনিধি ফজলুর রহমান রাজন, সাপ্তাহিক পাহাড়ের সময়ের সম্পাদক মিলটন বড়ুয়া, বৈশাখী টিভির জেলা প্রতিনিধি কামাল উদ্দিন, নতুন আমাদের সময়ের জেলা প্রতিনিধি চৌধুরী হারুনুর রশিদ, যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে দীপ্ত টিভির জেলা প্রতিনিধি সৈকত রঞ্জন চৌধুরী, নিউ এজ’র জেলা প্রতিনিধি শান্তিময় চাকমা, এসএ টিভির জেলা প্রতিনিধি মো. সোলায়মান, আমাদের সময়ের জেলা প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান, কোষাধ্যক্ষ পূর্বদেশের জেলা প্রতিনিধি এম কামাল উদ্দিন, তথ্য ও প্রচার সম্পাদক ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির জেলা প্রতিনিধি হিমেল চাকমা, দপ্তর সম্পাদক দেশ টিভির প্রতিনিধি বিজয় ধর, শিক্ষা ও কল্যাণ সম্পাদক এশিয়ান এজ’র এম নাজিম উদ্দিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক আর টিভির ইয়াসিন রানা সোহেল, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক এশিয়ান টিভির আলমগীর মানিক, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সময় টিভির হেফাজত-উল বারী সবুজ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক জিটিভির জেলা প্রতিনিধি মিলটন বাহাদুর, নারীবিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ প্রতিদিনের ফাতেমা জান্নাত মুমু, নির্বাহী সদস্য হিসেবে আছেন- সমকাল’র রাঙামাটি প্রতিনিধি সত্রং চাকমা, প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি সাধন বিকাশ চাকমা, একাত্তর টিভির জেলা প্রতিনিধি উচিংসা রাখাইন কায়েস, আমাদের বাংলার জেলা প্রতিনিধি বিহারী চাকমা ও মানব কণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি নুরুল আমিন মানিক।

প্রসঙ্গত, ১৩ সদস্য বিশিষ্ট রাঙামাটি প্রেসক্লাবে সম্প্রতি ৭ জন প্রাথমিক সদস্য অন্তর্ভুক্ত করা হয়; যারা এক বছর পর রাঙামাটি প্রেসক্লাবের পূর্ণ সদস্য হবেন। এরই মধ্য দিয়ে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের বর্তমানে সদস্য সংখ্যা ২০ জন। দুই দশক পর রাঙামাটি প্রেসক্লাবে এত কম সংখ্যক সদস্যকে অন্তর্ভুক্তকরণ নিয়েও সাংবাদিকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

9 − 3 =

আরও পড়ুন