৩৯৬ রোহিঙ্গাকে ইউএনএইচসিআর’র কাছে হস্তান্তর, রাখা হচ্ছে কোয়ারেন্টাইনে

fec-image

মালয়েশিয়াগামী ফেরত ৩৯৬ জন রোহিঙ্গাকে ইউএনএইচসিআর এর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে রাখা হচ্ছে টেকনাফ ও ঘুমধুম প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেনটাইনে।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) বিকালে কোস্টগার্ড সদস্যরা এসব রোহিঙ্গাদের ইউএনএইচসিআর এর কাছে হস্তান্তর করেন।

সূত্র জানায়, টেকনাফের বাহারছড়া জাহাজপুরার কমবনিয়া ঘাট থেকে মালয়েশিয়াগামী ফেরত আটক ৩৯৬ জন রোহিঙ্গাকে বিকালে ইউএনএইচসিআর এর কাছে হস্তান্তর করেছে কোস্টগার্ড। তাদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হবে। আগে থেকে প্রস্তুত রাখা টেকনাফ ও ঘুমধুম ট্রানজিট সেন্টারে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেনটাইনে রাখা হবে তাদের।

টেকনাফ স্টেশন কোস্ট গার্ডের কর্মকর্তা লে. কমান্ডার এম সোহেল রানা বলেন, রোহিঙ্গা ভর্তি জাহাজ টেকনাফ জাহাজপুরা ঘাট দিয়ে উঠা ৩৯৬ জন রোহিঙ্গাকে প্রাথমিক চিকিৎসাসহ মানবিক সেবা শেষে ইউএনএইচসিআর এর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস সংকটে তাদের ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখতে টেকনাফ কেরুনতলী ও ঘুমধুম প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেনটাইনে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

রোহিঙ্গারা জানান, গত দুই মাস পুর্বে ৪২২ জন রোহিঙ্গা ভর্তি একটি ট্রলার সাগর পথে মালয়েশিয়া পাড়ি দেয়। কিন্তু সেদেশে কড়াকড়ির কারণে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসে। সাগরে এত দিন ভাসমান থাকাকালীন তাদের ট্রলারে ২৮ জন মারা যায়।

বুধবার রাত ৯টায় মেরিনড্রাইভ সড়কের টেকনাফের বাহারছড়া থেকে ৩৯৬ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে কোস্টগার্ড সদস্যরা। তাদের বহনকারী জাহাজটি জব্দ করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: কোস্টগার্ড, টেকনাফ, রোহিঙ্গা
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen + fifteen =

আরও পড়ুন