কক্সবাজারে ৭৩ জন পতিতা, খদ্দের ও হোটেল ম্যানেজার আটক

fec-image

অবশেষে পর্যটন শহর কক্সবাজারের কলাতলী, লাইট হাউজ ও সৈকত পাড়ার কটেজ জোনে সাঁড়াশি অভিযান চালিয়েছে কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ। অভিযান চলাকালে কটেজ ম্যানেজার ও মালিকরা বাইরে তালা দিয়ে ভেতরে অপকর্ম করার সময় তালা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে পুলিশ। এসময় নানা অপকর্মে লিপ্ত থাকার কারণে বিভিন্ন কটেজ থেকে ৬৭ পতিতা ও খদ্দের, দালাল, ম্যানেজারসহ ৭৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত এই অভিযান চালায় থানা পুলিশ। কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি(তদন্ত) খায়রুজ্জামান বলেন, নানা অপকর্মের খবরে কটেজ জোনে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়। কিন্তু অনেক কটেজ মালিক অভিযানের টের পেয়ে বাইরে তালা দিয়ে ভেতরে অপকর্ম চালায়। এসময় তালা ভেঙ্গে পুলিশ ভেতরে প্রবেশ করলেই দেখা যায় নানা অপকর্মের দৃশ্য। ওই অপকর্মের স্থান থেকেই পতিতা, দালাল, খদ্দের ও ম্যানেজারসহ সংশ্লিষ্টদের আটক করা হয়েছে। ওসি আরও বলেন, এই অভিযান ধারাবাহিকভাবে চলবে। কেউ অপকর্ম করে রেহায় পাবেনা।

এদিকে যে সমস্ত কটেজে অভিযান হয়েছে তৎমধ্যে উল্লেখযোগ্য হল মান্নানের পরিচালনাধীন নতুন সবুজ কটেজ, ইসমাইলের আমির ডীম কটেজ, আসিফের ঢাকার বাড়ি-২, ইয়াবা ও মানবপাচার মামলার আসামি মিজান ও সোহেল দুই ভাইয়ের সী-ফ্লাউয়ার ও শাহেনা কটেজ, মানবপাচার মামলায় জেলে থাকা শহীদের শারমিন কটেজ, কবিরের সী-ল্যান্ড কটেজ, জাব্বারের ঢাকার বাড়ি, জয়নালের পরিচালনাধীন সাজ্জাদ ইলেকট্রনিকের কটেজ, ইয়াবার মামলায় জেলে থাকা নাছিরের ভাইয়ের পরিচালনাধীন দারুল ইহসান কটেজ, শাহাব উদ্দিনের রাজিউন কটেজ, জাহাঙ্গীরের পরিচালনাধীন শাকিল কটেজ, লালুর সী-গ্রীন, মো. সোহানের সোহান কটেজ, দিদারের মেঘালয় কটেজ ও বর্তমানে ইয়াবার মামলায় জেলে থাকা আরমানের রিসান কটেজ, ইউরেখা গেস্ট হাউজ, স্বপ্ন বিলাশ গেস্ট হাউজ, কোহিনুর রিসোর্ট, জাহান গেস্ট হাউজ, এম আজিজ কটেজ, কলাতলীর ডলপিন মোড়স্থ একাধিক মানবপাচার মামলার আসামী ও পতিতা ব্যবসায়ি ফয়েজ উদ্দিন ও আবু তালেব এর আল কক্স ও সায়েম কটেজ, গাজীপুর রিসোর্টসহ আরও একাধিক কটেজে অভিযান চলে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, অভিযানে আটককৃত ৭৩ জনের বিরুদ্ধে সিনিয়র অফিসারসহ ব্যাপক তদন্ত চালাচ্ছে। এদের মধ্যে যদি কেউ প্রকৃত স্বামী-স্ত্রী থেকে থাকে তাহলে তাদের ছেড়ে দেয়া হবে। বাকীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
ঘটনাপ্রবাহ: আটক, কক্সবাজারে
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × 4 =

আরও পড়ুন