উখিয়ায় অবাধ্য ছেলের বিরুদ্ধে মা’য়ের থানায় অভিযোগ দায়ের

fec-image

মা এবং বোনের উপর হামলার ঘটনায় খোরশেদ আলম (৪৫) নামের এক অবাধ্য ছেলের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দায়ের করেছেন মা গোলতাজ বেগম (৭৫)। সে উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের কুতুপালং ৯নং ওয়ার্ডের মৃত দুদু মিয়া চৌধুরী স্ত্রী। বুধবার (৩১ মার্চ) সকাল ১০টার দিকে এই হামলার ঘটনাটি ঘটে৷

থানায় দায়েরকৃত এজাহার সূত্রে জানা যায়,  ৪ বছর পূর্বে গোলতাজ বেগমের স্বামী মারা যায়। ছেলে খোরশেদ আলম তার ভরণ-পোষণ না চালানোর কারণে পাশ্ববর্তী মেয়ে রোকসানা আক্তারের বাড়ীতে আশ্রয় নেয়। সেখানে ভালোভাবে চলে আসছিল তার জীবন। কিন্তু প্রায় সময় তার সহায় সম্পত্তি গুলো বেচা-বিক্রি করার জন্য চাপ দিয়ে আসছিল বখাটে ছেলে খোরশেদ আলম। এতে রাজী না হওয়ায় বুধবার সকালে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে কুতুপালংস্থ রোকসানার স্বামীর বাড়ীতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে বাড়ীর আসবাবপত্র ভাংচুর করে, বাধা দিতে গেলে খোরশেদ আলম দা দিয়ে রোকসানার মাথায় আঘাত করে, কিল-ঘুষি, লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। পরে লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। এদিকে ঘটনার সম্পর্কে কোন আইনী পদক্ষেপ নিলে মা এবং মেয়েকে জানে মেরে ফেলবে বলে এখন প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে আসছে খোরশেদ আলম।

বয়োবৃদ্ধ মাতা গোলতাজ বেগম অভিযোগ করে বলেন, তার ছেলে খোরশেদ আলম এবং তার স্ত্রী ইছমত আরা বেগম যেকোন সময় আবার আমার উপর হামলা করতে পারে। কারণ তারা বারবার হুমকি দিয়ে আসছে। আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি। তাদেরকে গ্রেফতারের দাবি জানান সে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহাম্মদ সঞ্জুর মোরশেদ বলেন, জরুরী কাজে থানার বাইরে থাকায় এ বিষয়ে অবগত নয়, দেখে বিস্তারিত জানাবো৷

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − 9 =

আরও পড়ুন