বান্দরবানে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে কঠিন চীবর দান উৎসব চলছে

fec-image

যথাযথ ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে বান্দরবানে কঠিন চীবর দান উৎসব উদযাপন হচ্ছে। শনিবার (২৮ নভেম্বর) সকালে উজানীপাড়া রাজগুরু বিহারে তিন দিনব্যাপী এই চীবর দানোৎসব শুরু হয়। ধমীয় এই উৎসবকে ঘিরে রবিবার (২৯ নভেম্বর) সকালে জেলা শহরের উজানীপাড়া, মধ্যমপাড়া, জাদীপাড়াসহ আশপাশের এলাকার বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী নারী-পুরুষেরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে শোভাযাত্রা বের করেন।

বোমাং সার্কেল চিফ রাজা উচপ্রু চৌধুরীর নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিহারে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে ধর্মীয় প্রার্থনায় অংশ নেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নারী-পুরুষ। পরে মঙ্গলসূত্র পাঠ এর মাধ্যমে পূজনীয় ভিক্ষুসংঘের পিন্ডচরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়, এর পরপরই পঞ্চশীল প্রার্থনা, সদ্ধর্ম দেশনা, অষ্ট পরিষ্কারদান ও মহাসংঘদান অনুষ্ঠিত হয়।

পুণ্যের আশায় এ উৎসবে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী নারীরা মাত্র ২৪ ঘণ্টায় তুলা থেকে বিশেষ কায়দায় বানানো চরকা ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে সুতা তৈরি করেন। আর নতুন সুতায় রং লাগিয়ে কাপড় বুনে সেলাইবিহীন চীবর (কাপড়) তৈরি করেন বৌদ্ধধর্মীয় গুরু ভিক্ষুদের পরিধানের জন্য।

৩০ নভেম্বর পিন্ডদানের মাধ্যমে বান্দরবানে কঠিন চীবর দানোৎসব শেষ হবে। শেষদিনে বান্দরবান কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের প্রধান ভিক্ষুর (ভান্তে) নেতৃত্বে শতাধিক বৌদ্ধ ভিক্ষু ছোয়াইং (খাবার), চীবর কাপড়, মোমবাতি, টাকাসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহ করবেন।

Print Friendly, PDF & Email
Facebook Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

one + ten =

আরও পড়ুন